বুধবার ০৩ মার্চ, ২০২১

৪০০ টাকার ফুচকায় সার্ভিস চার্জ ১৫০০!

রবিবার, ১০ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:০২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

আফসানা আক্তার (প্রেস নারায়ণগঞ্জ): নারায়ণগঞ্জ শহরের ‘টিটেল ট্যাটেল রেস্টুরেন্ট এন্ড জুস পার্লার’ নামের একটি রেস্তোরাঁয় ৪০০ টাকার ফুচকার জন্য অতিরিক্ত ১৫০০ টাকা সার্ভিস চার্জ রাখার ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি উল্লেখ করে গত শনিবার (৯ জানুয়ারি) রাতে একটি ফুডগ্রুপে নুশরাত জাহান মুনা নামে এক কলেজ শিক্ষার্থী স্ট্যাটাস দেন। যোগাযোগ করা হলে ওই শিক্ষার্থী অভিযোগ করেন, সার্ভিস চার্জের বিষয়ে তাদের পূর্বে জানানো হয়নি। বিল দেওয়ার সময় সার্ভিস চার্জের বিষয়টি উল্লেখ করে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ।

নুশরাত জাহান মুনা জানান, দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই শিক্ষার্থী এক বন্ধুর জন্মদিন উদযাপন করতে শহরের কলেজ রোড এলাকায় অবস্থিত টিটেল ট্যাটেল রেস্টুরেন্ট ও জুস পার্লারে যান। তারা সংখ্যায় ছিলেন আটজন। সেখানে তিন ঘন্টা অবস্থান করলেও তারা কেবল ফুচকা অর্ডার করেন। ফুচকার দাম হিসেবে তাদের ৪০০ টাকা পরিশোধ করার কথা থাকলেও বিল করা হয় ১৯০০ টাকা। জানতে চাইলে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ জানায় তিন ঘন্টা অবস্থান করার জন্য অতিরিক্ত ১৫০০ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী বলেন, নারায়ণগঞ্জের কোনো রেস্তোরাঁয় সার্ভিস চার্জ রাখা হয় না। তাছাড়া তাদের এ ধরনের নিয়ম থাকলে ভোক্তাকে তা আগে জানানোর প্রয়োজন। কিন্তু কর্তৃপক্ষ এ বিষয়টি পূর্বে তাদের জানায়নি। বাধ্য হয়ে ঘন্টা প্রতি ৫০০ টাকা হিসেবে সর্বমোট ১৯০০ টাকা পরিশোধ করতে হয়েছে। এ নিয়ে কথা বললে রেস্তোরাঁর মালিকপক্ষ তাদের সাথে বাজে আচরণ করেন বলেও অভিযোগ নুশরাতের।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওই রেস্তোরাঁর স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুর রহমান সানি দাবি করেন, অভিযোগকারী তাদের নিয়মিত গ্রাহক। জন্মদিন উদযাপনে বেলুন, ফুলসহ আনুসাঙ্গিক জিনিস দিয়ে রেস্তোরাঁর কক্ষটি সাজানো হয়েছিল। এছাড়াও দীর্ঘ সময় একটি কক্ষে জন্মদিন উদযাপনের সুযোগ করে দেওয়ায় তারা সার্ভিস চার্জ নিয়েছেন।

সার্ভিস চার্জের বিষয়টি পূর্বে গ্রাহকদের জানানো হয়েছিল কিনা জানতে চাইলে সানি প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘জন্মদিন উদযাপন করতে অনেকেই আসেন। তারা ভালো একটা বিল করেন যা দিয়ে আমাদের লাভ হয়। কিন্তু অভিযোগকারীদের বেলায় যেটা হয়েছে, তারা দীর্ঘ সময় অবস্থান করলেও কেবল ফুচকার অর্ডার করেছিলেন। এই দীর্ঘ সময়ে তাদের কক্ষে অন্য কোনো কাস্টমারকে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। ফলে তাদের কাছ থেকে আমরা সার্ভিস চার্জ নিতে বাধ্য হই। অন্য সময় আমরা সার্ভিস চার্জ নেই না।’

এ বিষয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. সেলিমুজ্জামান প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘এমনটা যদি হয়ে থাকে ওই রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষকে টাকা ফেরত দিতে হবে। অন্যথায় ওই ভোক্তা আমাদের কাছে অভিযোগ করলে ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এতে ভুক্তভোগী প্রতিকার পাবেন।’

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ