বৃহস্পতিবার ২৪ অক্টোবর, ২০১৯

হিন্দুরা দুর্বল না, জেলা পরিষদ পাশে আছে: আনোয়ার হোসেন

বুধবার, ২ অক্টোবর ২০১৯, ২১:১৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘কেন্দ্রীয় কমিটির নিদের্শনা অনুযায়ী আসছে পূজা উদযাপনে পাশে আছি, থাকবো। যে কোন সমস্যা আমরা থাকবো, সকল ধর্ম নিয়ে এই দেশ। হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেকে ভাবেন আমরা সবাই দুর্বল, আপনারা এদেশে দুর্বল নয় বা সবল। দুর্গোৎসবে আপনাদের পাশে জেলা পরিষদ পাশে আছে, থাকবে।

বুধবার (২ অক্টোবর) বেলা ১২টায় জেলা পরিষদের সভাকক্ষে জেলার ২০৬টি মন্দিরে অনুদান চেক বিতরণকালে তিনি এ কথা বলেন। ২০৬টি মধ্যে বুধবার নারায়ণগঞ্জ সদর ও বন্দর প্রায় ৯৮ মন্দিরকে প্রদাণ করা হয়। বৃহস্পতিবার রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার, সোনারগাঁ মন্দিরগুলো মাঝে দেয়া হবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তফা হোসেন চৌধুরি, হাজী মো. আলাউদ্দিন, জেলা পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার ও মহানগর পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক উত্তম সাহা প্রমুখ।

তিনি বলেন, কারণ ১৯৭১ সালের যুদ্ধে সকলের একত্রে কাজ করেছে। সেখানে তখন মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ভেদাভেদ করা হয়নি। সকলের মিলে বঙ্গবন্ধুর নিদের্শে বাংলাদেশ স্বাধীন করে ছিলো। বর্তমানে দেশের ক্রান্তি লগ্নে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলে একত্রে কাজ করে যেতে হবে। তিনি যেন জীবনের শেষ প্রান্তে যেন মানুষ কাজ করে যেতে পারে। আমাদের সবাই মানুষে পাশে দাড়াতে হবে, অমানুষ সমাজে টিকতে পারে না। চেক ছাড়া জেলা পরিষদ থেকে কোন টাকা দিতে পারবে না।

তিনি আরো বলেন, দূর্গোৎসবে আওয়ামী লীগের সকল নেতা কর্মীদের পাশে থাকার নিদের্শেনায় কেন্দ্রীয় কমিটি। এতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভা করে দূর্গোৎসবে সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে করার আলোচনা হয়েছে। প্রতিটি ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক আপনাদের মন্দির মন্ডপের পূজা কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদকদের সাথে যোগাযোগ করছে।

পূজা মন্ডপের কমিটির উদ্দেশ্যে আনোয়ার হোসেন বলেন, জেলা পরিষদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাকে সম্মতি দিয়ে আপনারা গ্রহণ করছেন, তা ভালো লাগছে। আগে ২ হাজার দিত, আমি এসে ৩ হাজার করি, এবার আপনাদের ৪ হাজার টাকা দেয়া হলো। আগামিতে চেস্টা করবো আরেকটু বৃদ্ধি করার।

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুব্রত পাল বলেন, স্বাদ আছে কিন্তু আমাদের স্বাদো নাই। রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পেলে অনুদান বৃদ্ধি করা হবে। ধর্ম নিরপেক্ষ এই সরকার, হিন্দু হয়েছেন বলে সংখ্যালঘু ভাববেন না। আমরা মন্দির মসজিদে অনুদান দিয়ে থাকে। জেলায় অনেক স্থানে মন্দির সংস্কার চলছে।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ