শনিবার ২৪ আগস্ট, ২০১৯

হাজীগঞ্জে ৩০ টন চোরাই লোহার সামগ্রী উদ্ধার

সোমবার, ১৩ মে ২০১৯, ১৫:৪২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ঢাকা থেকে চুরি হওয়া বিপুল পরিমাণ লোহার সামগ্রী নারায়ণগঞ্জ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১২ মে) সকালে ফতুল্লা থানার উত্তর হাজীগঞ্জ এলাকায় সূত্রাপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে একটি ভবনের নিচতলা থেকে এসব উদ্ধার করে। এ সময় এক দম্পতিসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ।

সূত্রাপুর থানার এসআই হাফিজ মিয়া জানান, গত ১০ মে রাতে ঢাকার নবাবপুর এলাকার ঢাকা টেক্সটাইল মার্কেটের একটি গোডাউন থেকে ৩০ টন লোহার বড় বড় নাট বল্টু চুরি হয়। এ ঘটনায় খান ট্রেডিং এর মালিক নুরুল আমিন পরের দিন থানায় মামলা করেন। এরপর পুলিশ টানা ২ দিন দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। একপর্যায়ে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় পুলিশ নারায়ণগঞ্জের একটি এলাকায় চুরিকৃত মালামালের সন্ধান পায়। পরে ফতুল্লা এবং সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় উত্তর হাজীগঞ্জ এলাকায় শাহজালাল রোডের মো. খোকন মিয়ার মালিকানাধীন ৬ তলা ভবনের নিচতলায় তালাবদ্ধ একটি ঘর থেকে ২৫ কেজি করে প্যাকেট করা চুরিকৃত সব মালামাল উদ্ধার করা হয়। এ সময় বাড়ির মালিকের ছোট ভাই বকুল এবং ভাড়াটিয়া জলি ও তার স্বামী অপুকে আটক করা হয়।

ভবনের মূল মালিক ওমরা হজ্বে থাকায় তার ভাইকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

এসআই হাফিজ বিপুল পরিমাণ লোহার সামগ্রী চুরি হওয়া ঘটনাটি রহস্যজনক বলে দাবি করেন। তিনি মনে করেন, তদন্ত ছাড়া এ রহস্য ভেদ করা সম্ভব নয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১১ মে গভীর রাতে একটি কনটেইনারে করে এসব লোহার সামগ্রী আনা হয়। পরে ভোর পর্যন্ত এসব মাল আনলোড করা হয়।

স্থানীয়রা আরও জানায়, চলতি মাসেই খোকন মিয়ার ৬ তলা ভবনের নিচতলা ভাড়া নেয় অপু ও তার স্ত্রী জলি। তারা এর আগে থকেই এ ভবনের ৩য় তলায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বাস করেন। ৭ হাজার টাকা অগ্রীম ভাড়া দিয়ে ঘর ভাড়া নিলেও কোন মানুষজন সেখানে থাকতো না। তবে লোহার এসব মাল যখন ঘরে ঢুকায় তখন স্থানীয়দের বলা হয়, ‘পদ্মা সেতুর জন্য আনা এই মাল এখানে কিছুদিন থাকবে।’

খান ট্রেডিং এর ম্যানেজার মাহবুবুর রহমান জানান, মালামাল উদ্ধার করে গাড়িতে উঠানো হচ্ছে। অনেক মাল। সন্ধ্যার আগে কাজ শেষ হবে না। এ বিষয়ে তিনি আর কোন কথা বলতে রাজী হননি।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ