বুধবার ১৪ নভেম্বর, ২০১৮

সড়কের নাম রাজকীয় হলেও পথচারীদের ভোগান্তি নিত্যদিন (ভিডিওসহ)

রবিবার, ৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নবাব সিরাজউদ্দৌল্লা সড়ক। সড়কের নামটি রাজকীয় হলেও সড়কে নেই নামমাত্র শৃঙ্খল ব্যবস্থাপনা। সড়কটি এখন খানা-খন্দে ভরা। প্রতিদিন শত শত বাস, ট্রাক, কাভার্ড, ব্যক্তিগত গাড়িসহ অন্যান্য ছোট বড় যানবাহন এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে। একই সঙ্গে পথচারীদেরও অবাদ বিচরণ। কিন্তু এই পথচারীদের জন্য সড়কটিতে নেই কোন ফুটপাত। সড়কটির সঙ্গে ড্রেন যুক্ত রয়েছে। ড্রেনের উপর স্লাব। কিন্তু সেই ড্রেনের উপর চা, খাবার হোটেল, সেলুনসহ একাধিক দোকান গড়ে উঠেছে। ফলে পথচারীদের নিরাপদে হাটার কোন জায়গা অবশিষ্ট নেই। এতে র্দুঘটনার ঝুঁকি যখন তখন।

রোববার (৪ নভেম্বর) সড়কটিতে সরেজমিনে দেখা যায়, মেট্টোহল থেকে শুরু করে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট পর্যন্ত হরেক রকম পণ্যের ১৫-২০টি দোকানের সারি। দোকানগুলো সব অবৈধভাবে ড্রেনের স্লাবের উপর বসানো। দূর্ঘটনার আশঙ্কা নিয়েই গাড়ি আর পথচারীরা একত্রে যাতায়াত করছে। কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট থেকে একটু সামনে পর্যন্ত পথচারীরা নিরাপদে স্লাবটি দিয়ে চলাচল করে। কিন্তু এর একটু সামনেই অভ্যন্তরীন নৌ পরিবহন কর্পোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) প্রধান ফটকের সামনে নগরের ময়লা পড়ে থাকে। এই কারণে পথচারীরা আবার স্লাব ছেড়ে সড়কের পাশ দিয়ে যাতায়াত করে। এছাড়াও স্লাবের অনেক অংশ ভেঙে গর্তে পরিনত হয়েছে।

সড়কটির ড্রেনের উপর বসানো স্লাবই সেই এলাকার মানুষ ফুটপাত বলে মনে করেন। কিন্তু যাতায়াত করেন প্রধান সড়ক দিয়ে। এই নিয়ে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট এলাকাবাসী সুনীল কুমার বলেন, রাস্তায় হাঁটার সময় কিছুটা নিরাপত্তা সবাই চায়। এই রাস্তায় হাঁটা অনেক রিস্কের। রাতের বেলা মানুষ যে হাঁটে, কার উপর দিয়ে গাড়ি চলে যায় তার কোন ঠিক নাই। স্লাবের উপর দিয়ে হাঁটা যায় কিন্তু কোন জায়গায় দোকান, আবার কোন জায়গা ময়লা। ময়লা যেখানে সেই দিকে রাস্তার বিপরীত পাশ দিয়ে হাঁটে মানুষ। মানুষের সাথে ঘেষে বাস যায়।

স্লাবের উপর নির্মিত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন দোকানদার বলেন, দোকানটা তো আজকালের না। বহুদিন ধইরা এহানে দোকান বসাইছি। মানুষ তো চলেই রাস্তা দিয়া। সমস্যা হয় না। সমস্যা হলে দোকান সড়াই দিতো।

এ বিষয়ে ১৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ এর সাথে যোগযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি জেলার বাহিরে থাকার কারণে তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে

ওর্য়াড সচিব মো. আলী সাবাব টিপু এ বিষয়ে বলেন, এই সড়কে পথচারীদের দূর্ভোগ এই একটি নয়, একাধিক। এই সড়কের ড্রেনের স্লাবের উপর দোকানপাট তো আছে। সেই সাথে স্লাবের উপর সিটির ময়লা পড়ে থাকে। এগুলোর কারনেই সকলে রাস্তা দিয়া হাঁটে। নয়ত স্লাবের উপর দিয়েই নিরাপদে চলাচল করা যেত। এছাড়াও এই স্লাবগুলো ভেঙে আছে। এগুলো ঠিক করার জন্য টেন্ডারের কথা বলা হয়েছে। টেন্ডার হলে স্লাবগুলো ঠিক করা হবে।

সব খবর
জনদুর্ভোগ বিভাগের সর্বশেষ