মঙ্গলবার ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮

স্বপ্ন সব সময়ই দেখতাম, এখনও দেখি

মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮, ১৯:৩৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

মাহমুদুন নবী (প্রেস নারায়ণগঞ্জ): বিশ্বজুড়ে বিশ্বকাপ উম্মাদনা চলছে। শুরুতেই হট ফেভারিটরা হোচট খাচ্ছে। আর্জেন্টিনার পথ অনুসরণ করে ব্রাজিলও ড্র করে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে। কিন্তু বেশি হতাশ করেছে গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানী ম্যাক্সিকোর কাছে হেরে গিয়ে। ফলে ক্রীড়া বিষেজ্ঞদের সকল হিসেব-নিকেষ উলোট-পালট হয়ে যাচ্ছে। এমন একটি সময়ে কথা হয় বাংলাদেশের জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ও নারায়ণগঞ্জের কৃতি সন্তান মোঃ শহীদুল হোসেন স্বপনের সঙ্গে। প্রেস নারায়ণগঞ্জের সঙ্গে আলোচনায় উঠে এসেছে তার নানা বিশ্লেষণ। শহরের খানপুর বার একাডেমি স্কুল সংলগ্ন তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চারু এন্টারপ্রাইজে কথা হয় তার সাথে। জানালেন বিশ্বকাপ দেখতে ৩০ জুন যাচ্ছেন রাশিয়া।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ফুটবলের সাথে জড়িত হবার পিছনের ইতিহাসটা বলুন।

শহীদুল হোসেন স্বপন: পারিবারিক ভাবেই আমার বড় ভাই ফুটবল খেলতেন। তাই তার থেকেই অনুপ্রেরণা পাওয়া। আমি যখন নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুলের ছাত্র ছিলাম তখন থেকেই খেলতাম। এরপর বয়স বাড়ার সাথে সাথে খেলাধূলার সাথে যুক্ততা বাড়ে। পরবর্তীতে আমরা তিন ভাই জাতীয় দলে খেলেছি। খেলাটাকে সবসময় উপভোগ করতাম। এখনও করি।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: এখন খেলাধূলার সাথে কতোটা জড়িত? কীভাবে?

শহীদুল হোসেন স্বপন: এখনো খেলার সাথেই বেশী জড়িত। আমি নারায়ণগঞ্জ ক্রীড়া সংস্থার সদস্য। এছাড়াও আরও তিনটি ক্লাবের সাথে জড়িত রয়েছি। ফুটবল খেলতে আগ্রহীদের অনুশীলন করাই। প্রতিদিন বিকেল ৩টায় বরফকল মাঠে সেই অনুশীলন চলে।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নিজের কী এখনও খেলার মাঠে যাওয়া হয়?

শহীদুল হোসেন স্বপন: অবশ্যই। আমি নিজে এখনও খেলি। তবে তরুণদের সাথে নিশ্চয়ই নয়। আমার বয়সী যারা আছেন তাঁদের সঙ্গে।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: খেলাধূলার পাশাপাশি আর কী করেন?

শহীদুল হোসেন স্বপন: আমার ইট, বালু, সিমেন্টের ব্যবসা রয়েছে, এটুকুই। এর বাইরে সবটাই খেলা।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বিশ্বকাপ ফুটবলে মূল পর্বে খেলছে ৩২ টি দল। এদের মধ্যে কার খেলা ভালো লাগে? এবং কেনো?

শহীদুল হোসেন স্বপন: আমি ছোট বেলা থেকেই ব্রাজিলের সমর্থক। তাদের খেলা ভালো লাগে। অসাধারণ নৈপুণ্য আর ছন্দের ফুটবল দেখতে যারা পছন্দ করেন তারা সাধারণত ব্রাজিলকেই ভালোবাসবেন। তবে আর্জেন্টিনা, জার্মানি বা অন্যান্য ভালো দলের খেলাও পছন্দ করি।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ফাইনালে কারা খেলবে বলে আশা করেন?

শহীদুল হোসেন স্বপন: খেলা নিয়ে আগে থেকে কিছুই বলা যায় না। এখানে যোগ্যতার সাথে ভাগ্যের প্রতিও নজর রাখতে হয়। তাই কিছু বলতে চাইছি না।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: যদি যোগ্যতার বিচারে বলতে বলা হয়?

শহীদুল হোসেন স্বপন: যোগ্যতার দিক থেকে আমি বলবো জার্মানি, স্পেন, ব্রাজিল কিংবা ফ্রান্স। এ চার দলের যে কোনো দুই দলের মধ্যে ফাইনাল খেলা দেখতে পাওয়ার সম্ভাবনা বেশী।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বিশ্বকাপ ফুটবলের মূল পর্বে লাল-সবুজের বাংলাদেশ খেলছে এমনটা স্বপ্ন কখনও দেখেন বা দেখেছেন?

শহীদুল হোসেন স্বপন: স্বপ্ন সব সময়ই দেখতাম, এখনও দেখি। কিন্তু আগামী ২০০ বছরেও বাংলাদেশ বিশ্বকাপ ফুটবলের মূল পর্বে খেলতে পারবে বলে মনে হয় না। আশাও করি না।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: কেনো এমন মনে হয় ব্যাখ্যা করবেন?

শহীদুল হোসেন স্বপন: এ জন্যে বাফুফের কিছু নীতিমালাই দায়ী।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ফুটবল বিশ্বকাপের সময় বাংলাদেশে যে পরিমানে ফুটবল প্রেমী দেখা যায় খেলার মাঠে কী সে তুলনায় নতুন খেলোয়ার আসছে?

শহীদুল হোসেন স্বপন: না। দুটোর মধ্যে অনেকটা তফাৎ। তারপরেও বলতে হয় আমরা যখন খেলতাম তখন শুধুমাত্র আমাদের এলাকাতেই ফুটবল খেলার উপযুক্ত ৩ টি মাঠ ছিলো। এখন পুরো নারায়ণগঞ্জ শহরে মাত্র দুটি মাঠ রয়েছে। এই মাঠ না থাকলে ছেলেরা খেলবে কোথায়? আপনি প্রাইমারী স্কুলে না পড়ে তো আর ইউনিভার্সিটিতে গিয়ে ভর্তি হতে পারবেন না। তাই মাঠগুলো উদ্ধার করতে হবে, নতুন মাঠ তৈরি করতে হবে।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: শেষ প্রশ্ন, খেলাধূলায় রাজনীতির প্রভাব আপনাদের সময় কতোটা ছিলো? বর্তমান সময়ে কতোটা?

শহীদুল হোসেন স্বপন: আমাদের সময় খেলাধূলায় রাজনীতির প্রভাব ছিলো খুবই কম। যা বর্তমান সময়ে বহুগুন বেড়েছে।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: আপনাকে ধন্যবাদ।

শহীদুল হোসেন স্বপন: আপনাকেও ধন্যবাদ।

সব খবর
সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বশেষ