মঙ্গলবার ১১ আগস্ট, ২০২০

সোনারগাঁও বিএনপি সভাপতির মুক্তিযোদ্ধার সনদ বাতিল

শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৫:০১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ‘প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নন’ এমন অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সোনারগাঁও উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফরের মুক্তিযোদ্ধার গেজেট ও সনদ বাতিল হতে যাচ্ছে। তাঁর মুক্তিযোদ্ধার গেজেট নম্বর- ১৫২১। অচিরেই এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হবে।

গত মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী ও জামুকার চেয়ারম্যান আ ক ম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে সরকারি প্রতিষ্ঠান জামুকার (জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল) ৬৬তম অনুষ্ঠিত সভায় তাঁর মুক্তিযোদ্ধার গেজেট ও সনদ বাতিলের সুপারিশ করা হয়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ ৩) আসনে খন্দকার আবু জাফর বিএনপির মনোনয়নপত্র পেয়েছিলেন।তাঁর দাবি, তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার।

খন্দকার আবু জাফর বলেন, ‘বর্তমানে দেশে যে অবস্থা বিরাজ করছে, তা দেখার জন্য মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করিনি। আগে যদি জানতাম, শিয়ালের মুখ থেকে উদ্ধারের পর দেশ বাঘের মুখে পড়বে তাহলে যুদ্ধ করতাম না।’

তিনি আরও বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের ৯ মাসে সোনারগাঁয়ে একবারই পাক বাহিনীর সাথে মুক্তিবাহিনীর প্রত্যক্ষ লড়াই হয়। মোগড়াপাড়া ইউনিয়নের চিনারবাগ এলাকায় এ সম্মুখযুদ্ধে তিনি অংশ নেন। যার সাক্ষী এ যুদ্ধে সোনারগাঁয়ের আরও যারা অংশগ্রহণ করেছিলেন। জীবনের মায়া ত্যাগ করে তখন যুদ্ধে গিয়েছিলাম। কোন কিছু পাবার আশা তখনও করেনি, আজও করি না।’

উল্লেখ্য, বিএনপি-জোট সরকারের আমলে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনে সংসদ সদস্য অধ্যাপক রেজাউল করিম।

জানা যায়, দেশের বিভিন্ন এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে ‘প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নন’ বলে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় ও জামুকায় লিখিত অভিযোগ আসে। এসব অভিযোগ তদন্ত করে শুনানি গ্রহণ করেন জামুকার চেয়ারম্যান ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী স্বয়ং। জামুকার সুপারিশের ভিত্তিতে গেজেট ও সনদ বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারির পরই তাদের সরকারি সুযোগ-সুবিধাও বন্ধ হয়ে যাবে।

 

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ