সোমবার ২৭ মে, ২০১৯

সেন্ট্রাল খেয়াঘাট: বন্ধ হচ্ছে না ‘টোল ফ্রি’ সুবিধা

বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০১৯, ২২:২৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সেন্ট্রাল খেয়াঘাটের ইজারা হাতবদল হয়েছে। ইজারাদার পরিবর্তন হওয়ায় এ ঘাটের ফ্রি সেবা বন্ধ হওয়ার খবর ছড়িয়েছে। তবে ফ্রি সেবা বন্ধ হবে না বলে আশ্বস্ত করে নতুন ইজারাদার জানিয়েছেন, ‘আগের মতোই নির্ঝঞ্ঝাটভাবে যাত্রীরা সব ধরণের সুবিধা ভোগ করতে পারবে। টোল নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।’

বিআইডব্লিউটিএ অধীন গত ১৪ মে সেন্ট্রাল খেয়াঘাটের ইজারা সম্পন্ন হয়েছে। এতে পুরোনো ইজারাদারকে পেছনে ফেলে নতুনভাবে ইজারা পান হিমেল খান নামক এক ব্যক্তি। তিনি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীপন্থী যুবলীগ নেতা।

আগামী জুন মাসের এক তারিখ থেকে তার তত্ত্বাবধানে সেন্ট্রাল খেয়াঘাট পরিচালনা শুরু হবে। এ ঘাট দিয়ে প্রতিদিন প্রায় লক্ষাধিক মানুষ যাতায়াত করেন।

গত ২০১৪ সালের জুন মাসে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের উপ নির্বাচনে একেএম সেলিম ওসমান এমপি নির্বাচিত হন। এরপর শহর ও বন্দরবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে উক্ত বছরের ১৬ ডিসেম্বর থেকে সম্পূর্ন ব্যক্তিগত উদ্যোগে বন্দর সেন্ট্রাল খেয়াঘাট দিয়ে যাত্রীদের জন্য সম্পূর্ন টোল ফ্রি করে দেন এমপি সেলিম ওসমান। যাত্রীদের টোল ফ্রি করে দেওয়ার পাশাপাশি উক্ত ঘাটে চলাচলকারী সকল নৌকার মাঝিদেরও দৈনিক ইজারা জমা মওকুফ করে দেওয়া হয়। সেই সাথে যাত্রীদের দ্রুত ও নিরাপদ নদী পারাপারের স্বার্থে ১০টি নতুন ট্রলারের ব্যবস্থা করেন যার মধ্যে ৫টি ট্রলার দিয়ে সাধারণ যাত্রীদের সম্পূর্ণ বিনা খরচে নদী পারাপার করা হচ্ছে।

কিন্তু চলতি বছরের গত ১৪ মে বন্দর সেন্ট্রাল খেয়াঘাটের দরপত্র আহবান সম্পন্ন করেছেন। নতুন ইজারাদার ফের টোল ব্যবস্থা চালু করবেন কিনা এমন আশঙ্কা তৈরি হয়েছে বন্দর ও শহরবাসীর মধ্যে। তবে এ বিষয়ে জনগণকে আশ্বস্ত করেছেন ইজারাদার যুবলীগ নেতা হিমেল খান।

তিনি প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, সাধারণ মানুষকে কোন ভোগান্তি পোহাতে হবে না। মাননীয় সাংসদ যেভাবে পূর্বে এই ঘাট চালিয়েছেন; সেভাবেই চলবে। কাউকে কোন প্রকারের হয়রানি করা হবে না। এই ঘাট টোল ফ্রিই থাকবে। সাধারণ মানুষের স্বস্তি যেভাবে হয় সেভাবেই চলবে খেয়া পারাপার ব্যবস্থা।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ