সোমবার ১৪ জুন, ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জে শিশু অপহরণের পর হত্যা

বুধবার, ৫ মে ২০২১, ২২:০০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ১১ দিন পর নিখোঁজ সাত বছরের শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ জালকুড়ি তালতলা এলাকা থেকে বুধবার (৫ মে) সকালে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় সুজন নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

পুলিশ জানায়, নিহত শিশুর নাম মো. রিয়াদ। সে তালতলা এলাকার বাসিন্দা রাজু আহমেদের ছেলে। রাজু ও গ্রেফতার সুজন দু’জনেই পেশায় রাজমিস্ত্রী৷ থাকতেনও একই এলাকায়৷ দু’জনেই গাইবান্ধা জেলার বাসিন্দা হওয়াতে তাদের মধ্যে সখ্যতা গড়ে ওঠে৷ মুক্তিপণ আদায়ের জন্য সুজনই ওই শিশুকে অপহরণ করে এবং পরে হত্যা করে৷

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‘ক’ অঞ্চল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী বলেন, গত ২৪ এপ্রিল বাসার সামনে থেকে নিখোঁজ হয় শিশু রিয়াদ৷ সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজির পর না পেয়ে তিনদিন পর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে পরিবারের লোকজন। এরপর গত ৩ মে একটি নম্বর থেকে ফোন করে রিয়াদকে ছেড়ে দেয়ার বিনিময়ে দুই লাখ টাকা দাবি করা হয়। সেই ফোনের সূত্র ধরে পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় সুজন নামের ওই যুবককে মঙ্গলবার রাতে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে সুজন জানান, ২৪ এপ্রিল সোনামিয়া মার্কেটে মেলা দেখানোর কথা বলে রিয়াদকে বেড়াতে নিয়ে যান। পরে তাকে তালতলা এলাকায় একটি নির্জন জায়গায় গলা টিপে হত্যা করে পাশের পুকুরের পাড়ে মরদেহ ঢেকে রাখে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও জানান, সুজন নিজেই আবার শিশুটির বাবার সঙ্গে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে মাইকিং করেন৷ পরে পরিস্থিতি বুঝে শিশুটির বাবার কাছে ফোন করে মুক্তিপণ চান তিনি। এই ঘটনায় নিহত শিশুর বাবা হত্যা মামলা করেছেন। সেই মামলায় সুজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ