বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জে দুই কাউন্সিলর সমর্থকদের সংঘর্ষ, গ্রেফতার ১১

বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ১৯:৪৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সিদ্ধিরগঞ্জে বর্তমান ও সাবেক কাউন্সিলরের অনুগত দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছে। এ সময় প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনাও ঘটেছে।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) সন্ধ্যা ৭টায় নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের আদমজী সুমিলপাড়া রেললাইন এলাকায় আক্তার হোসেন ও হান্নান গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা স্থানীয় ও নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

এ ঘটনায় বুধবার (১৯ জুন) বেলা ৩ টায় নাসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও থানা যুবলীগের সভাপতি মতিউর রহমান মতির অনুগত সুমিলপাড়া আইলপাড়া এলাকার পানি আক্তার গ্রুপের ইউনুছ মিয়ার ছেলে শাহ আলম বাদী হয়ে বাত্তি মিজান, হান্নান, ফারুক হোসেন বাক্কু, শাহাদাৎ হোসেন, ফিরোজ, স্বপন, জসিম, আবু খান, শাহ আলম, ওসমান, স্বপন, রনি, হান্নান, রুবেল ও উবায়েদ উল্লাহ সহ ১৬ জনকে এজাহার নামীয় এবং অজ্ঞাত ১০/১৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

এদিকে নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের অনুগত হান্নান গ্রুপের পক্ষে সুমিলপাড়া এলাকার সুমন মিয়ার ছেলে জসিম বাদী হয়ে পানি আক্তার, ইকবাল, আরিফ, শামীম, বাবু, ইউসুফ, মিজান, রবিন, নুর হোসেন, আলমগীর, হাসান, ইব্রাহীম, বাচ্চু, স্বপন, সজীব, রাজীব, আমির হোসেন, চাঁন মিয়া, সোবহান, রবিউল, হৃদয়, রহমান, রিফাত, বিল্লালসহ ২৫ জনকে এজাহার নামীয় এবং অজ্ঞাত ২৫/৩০ জনকে আসামী করে পৃথক একটি মামলা দায়ের করেন।

পাল্টাপাল্টি দুই মামলায় দুই গ্রুপের প্রধানসহ ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ। ধৃতরা হলো, আক্তার হোসেন, মিজান, আবদুল হান্নান, স্বপন, ফিরোজ আহমেদ, শাহাদাত হোসেন, রবিন, বিল্লাল হোসেন, নূর হেসেন, মিজানুর ও শামীম।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবসাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পানি আক্তার গ্রুপের মো. হৃদয়কে মারধর করে হান্নান গ্রুপের লোকজন। পরে রাত ৮ টার দিকে আক্তার গ্রুপের ৪০/৪৫ জন দেশিয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিপক্ষ হান্নান গ্রুপের উপর হামলা চালায়। তখন শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। এ ঘটনায় আহত হয় হৃদয়, ইব্রাহীম, রবিউল, আরিফ, রাসেল আহমেদ, জসিম, ইসমাইল, ইউসুফ, রাকিব, সাইদুল, শুভ ও মিজান। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে থানা পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী বাক্কুর নেতৃত্বে হান্নান গ্রুপের লোকজন প্রতিপক্ষ আক্তার হোসেনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। তবে হান্নান গ্রুপের অভিযোগ গার্মেন্টস ছুটি হওয়ার পর রাস্তা দিয়ে নারী শ্রমিকরা হেঁটে যাওয়ার সময় আক্তার গ্রুপের হৃদয় সহ কয়েকজন ইভটিজিং করায় বাধা প্রদান করলে তারা হামলা চালিয়ে তাদেরকে মারধর করেছে।

খবর পেয়ে রাত সাড়ে ৮ টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর শাহীন শাহ্ পারভেজ এর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর শাহীন শাহ্ পারভেজ জানান, দুই পক্ষই মামলা দায়ের করেছে। উভয় পক্ষের ১১ জনকে গ্রেফতার করে বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। কেউ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিঘœ ঘটালে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ