শনিবার ২৪ আগস্ট, ২০১৯

সাকি নিখোঁজের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীকে স্মারকলিপি

মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০১৯, ২০:৩৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: দেড় বছরের শিশু সাদমান সাকি নিখোঁজের ঘটনায় জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরবার স্মারকলিপি প্রদান করেছে সাকির পিতা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ওমর খালেদ এপন৷

মঙ্গলবার (১৪ মে) সকালে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে এ স্মারকলিপি প্রদান করা হয়৷ এর অনুলিপি জেলা পুলিশ সুপারের কাছেও প্রদান করা হয়েছে৷

স্মারকলিপিতে এপন উল্লেখ করেছেন, আমার দেড় বছরের শিশু নিখোঁজ হওয়ার পর প্রায় ১৭ মাস অতিবাহিত হয়ে গেছে কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে সান্তনা ও আশ্বাস ছাড়া আজ অবধি কিছুই পেলাম না৷ আমার শিশুপুত্রকে উদ্ধারের জন্য প্রশাসনকে সর্বাত্মক সহযোগিতাসহ সকলের দ্বারে দ্বারে পাগলের মতো আকুতি-মিনতি করেও কোন ফল না পেয়ে বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার মানবেতর জীবনযাপন করছি৷ আমি স্ত্রী সন্তান হারিয়ে নির্বাক হয়ে গেছে, সে এখন শয্যাশায়ী৷ আমি ও আমার পরিবার আমার শিশু সন্তানকে ফিরে পেতে আপনার (প্রধানমন্ত্রী) দুয়ারে ভিক্ষাপ্রার্থী৷

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, স্বজন হারানোর বেদনা আপনার চেয়ে ভালো কেউ জানে না৷ আমার শিশুপুত্রকে আপনার রাসেল ভেবে হলেও আমার ছেলেকে উদ্ধার করতে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিবেন বলে আশা করছি৷

প্রসঙ্গত, শহরের দেওভোগের নিজ বাসার সামনে থেকে ২০১৭ সালের ১ ডিসেম্বর নিখোঁজ হয় দেড় বছরের শিশু সাদমান সাকি। নিখোঁজ হওয়ার পর ১৫ মাস পেরিয়ে গেছে কিন্তু কোন হদিস মেলেনি শিশু সাকির। এদিকে সাকির পিতা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ওমর খালেদ এপন ছেলে অপহরণের অভিযোগ তোলে নাসিক ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও বাংলাদেশ হোসিয়ারি সমিতির সভাপতি নাজমুল আলম সজলের বিরুদ্ধে। এদিকে কাউন্সিলর সজল পাল্টা অভিযোগ করেন সাকির পিতার বিরুদ্ধে। সম্প্রতি এক প্রতিবাদ সভায় তিনি দাবি করেন, সাকির পিতা এপনকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই সাকি অপহরণের আসল ঘটনা জানা যাবে। এদিকে দুই পক্ষেরই কর্মসূচি চললেও মূলত নিখোঁজ কিংবা অপহৃত সাকির কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। সিআইডির তদন্তকারী কর্মকর্তাও তদন্তের কোন কূল কিনারা খুজে পাচ্ছেন না। যদিও গত ২৮ এপ্রিল সাকি অপহরণের ঘটনায় জড়িত অভিযোগে জোনায়েত আহমেদ সবুজকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ