রবিবার ১৮ আগস্ট, ২০১৯

সন্দেহজনকভাবে কাউকে মারধর না করার আহ্বান ওসি রফিকুলের

শনিবার, ২৭ জুলাই ২০১৯, ২০:০০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘গলাকাটা আতংকে আতংকিত না হয়ে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও সাধারণ মানুষকে সতর্ক থাকতে হবে। কেউ আতঙ্কিত হবেন না। সন্দেহজনকভাবে কাউকে ধরলে মারধর করবেন না। আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করবেন।’

শনিবার (২৭ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। গলাকাটা গুজব, ইভটিজিং, মাদকের প্রতিকার বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গিকার’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে বন্দরে অনুষ্ঠিত হয়েছে গণসচেতনতা সপ্তাহ সভা ও র‌্যালি।

র‌্যালিটির নেতৃত্ব দেন বন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম। বন্দর থানা পুলিশের আয়োজনে র‌্যালিটি বন্দরের নবীগঞ্জ টি-হোসেন রোড থেকে বের হয়ে প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিন করে নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে শেষ হয়। পরে নবীগঞ্জ টি-হোসেন জামে মসজিদে গণসচেতনতা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় ওসি বলেন, বন্দর উপজেলায় সপ্তাহব্যাপী পোশাক পরিহিত অবস্থায় বন্দর থানা পুলিশ বিভিন্ন মসজিদে ঈমাম, মুসুল্লী, চেয়ারম্যান, মেম্বার ও সাধারণ মানুষকে সচেতনতার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। উপজেলার সর্বত্র ছেলে ধরা ও গলাকাটা আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ ধরণের গুজবে কেউ যেন কান না দেয় তাই পুলিশের পক্ষ থেকে সচেতনামূলক এ র‌্যালি ও সভা করা হচ্ছে।

সভায় বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান এমএ রশিদ বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে। দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য কেউ কেউ এ গুজব ছড়াচ্ছে। গনপিটুনি দিয়ে কাউকে হত্যা করা ফৌজদারি দন্ডবিধিতে অপরাধ এবং আইনগতভাবে এটি দন্ডনীয় অপরাধ। আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশকে সংবাদ দিন।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহমেদ, ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদ, মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধানসহ উপজেলার বিভিন্ন মেম্বার ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ