বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

শ্রমিক নেতা পলাশের অনুসারীদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ

রবিবার, ৬ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৪৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: জাতীয় শ্রমিক লীগের শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশের অনুসারী বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে ইজিবাইক ও ব্যাটারি চালিত রিকশায় চাঁদাবাজির অভিযোগে মানববন্ধন করেছে ফতুল্লার পাগলা এলাকার ইজিবাইক ও ব্যাটারি চালিত রিকশার মালিকরা। একই অভিযোগে ফতুল্লা মডেল থানায় ও জেলা প্রশাসকের কাছে একটি অভিযোগপত্র প্রদান করেন তারা।

রোববার (৬ অক্টোবর) সকালে ফতুল্লা থানার সামনে মানববন্ধন করেন তারা। পরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে একটি অভিযোগপত্র প্রদান করা হয়।

এ ঘটনায় অভিযুক্তরা হলো- জেলা ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এর সভাপতি শাহাদাত হোসেন সেন্টু, পঞ্চবটির আব্দুর রশিদের ছেলে আজিজুল, পাগলা রসূলপুর এলাকার মফিজের ছেলে মজিবর, নয়ামাটি এলাকার আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে সালু, পাগলা ভাবীবাজার এলাকার কাওসার, মোশারফ, শরীফ, ইমরান, সোহাগ, সাইদুল।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, অভিযুক্তরা ব্যাটারি চালিত রিকশা ও ইজিবাইকের মালিকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ দাবি করে। অভিযুক্তরা তাদের কাছ থেকে ৬৫০০ টাকা মূল্যের একটি টোকেন নিতে বলেন। অর্থ না দিলে তাদের যান চালানো বন্ধ করে দিবে বলে হুমকি প্রদান করে। তাদের দাবি না মানলে ইজিবাইক মালিকদের উপর হামলা চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

অভিযোগে তারা জানান, ২০১২ সাল থেকে দৈনিক তাদের ৩০ টাকা করে ও প্রতি গাড়ির মাসিক চাঁদা হিসেবে ৩০০ টাকা দিয়ে আসছেন ইজিবাইক মালিকরা। এছাড়া ব্যাটারি চালিত রিকশার প্রতি টোকেনের মূল্য ৩০০ টাকা এবং প্রতি মাসে ১৫০ টাকা করে চাঁদা দিতে হয়। কিন্তু এর বিনিময়ে মালিক কিংবা চালকদের কোন সুবিধাই তারা প্রদান করেন না। উল্টো চাঁদার পরিমাণ আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন তারা।
ইজিবাইক ও ব্যাটারি চালিত রিকশার মালিকরা বলেন, আমাদের টাকা দিয়ে তারা বিশাল বিত্তশালী হয়ে উঠছেন। কিন্তু আমরা টাকা দিতে নারাজি জানালেই তারা নানা ভয়ভীতি দেখায়। এমন অবস্থায় আমরা নিরুপায়। প্রশাসনের হস্তক্ষেপ ছাড়া এই অবস্থা থেকে মুক্তির উপায় নেই। তাই আমরা এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফতুল্লা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) সাখাওয়াত হোসেন বলেন, সড়কে চাঁদাবাজি করলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা তদন্ত করে এর সাথে যারা যারা জড়িত তাদের সকলকেই আইনের আওতায় নিয়ে আসবো।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ