সোমবার ১৯ আগস্ট, ২০১৯

শুরুতেই পরিবহন নেতাদের বাধার মুখে বিআরটিসি

শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ১৭:০৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: দীর্ঘ দুই বছর পর নারায়ণগঞ্জ-ঢাকা বিআরটিসি’র এসি বাস পুনরায় চালু হলেও শুরুতেই পরিবহন নেতাদের বাধার মুখে পড়েছে সরকারি এ বাস সেবাটি। চাষাড়া ও মেট্রো হলের সামনের বিআরটিসি’র কাউন্টার তুলে দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ বাস মালিক সমিতির লোকজন। শিবু মার্কেটেও বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে প্রশাসনকে অবহিত করা হলেও কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে যে কোন সময় ফের বাস সার্ভিসটি বন্ধ হয়ে যাবার আশংকা দেখা দিয়েছে। এদিকে নারায়ণগঞ্জবাসী এবং প্রশাসনের সহায়তা ছাড়া এ রুটে বাস চালানো সহজ নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিআরটিসি নারায়ণগঞ্জ ডিপো ম্যানেজার প্রকৌশলী জেডএ কামরুজ্জামান।

জানা গেছে, গত বুধবার (২২ মে) সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ১৫টি বিআরটিসি এসি বাসের উদ্বোধন করেন। গুলিস্তান থেকে ওই দিন থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে এ বাসের যাত্রা শুরু হয়। নারায়ণগঞ্জের ম-লপাড়া এবং মেট্রো হল থেকে এ বাস ছাড়া হয়। যা পর্যায়ক্রমে চাষাড়া, শিবুমার্কেট ও জালকুড়ি কাউন্টার ধরে গুলিস্তান যাবে।

বাস সার্ভিসটি চালু করার পর থেকেই ক্ষমতাসীনদের বাধার মুখে পড়ে। দুই দিনের মাথায় চাষাড়ার কাউন্টারটি সরিয়ে দেয় নারায়ণগঞ্জ বাস মালিক সমিতির লোকজন। এমনকি চাষাড়ায় বিআরটিসির কোন বাস থামতেও দেয়া হচ্ছে না। চাষাড়ায় বেসরকারি এসি বাস ‘শীতল’ এর কাউন্টারের পাশেই ছিল বিআরটিসি এসি বাসের কাউন্টার।

বিআরটিসি নারায়ণগঞ্জ ডিপো ম্যানেজার প্রকৌশলী জেডএ কামরুজ্জামান বলেন, ‘কাউন্টার নিয়ে আর কোথাও ঝামেলা না হলেও চাষাড়ায় কাউন্টার বসানো নিয়ে শুরু থেকেই বাধা পেয়ে আসছি। আজতো (শুক্রবার) বাধার মুখে বন্ধই করে দেয়া হয়েছে। বাস উদ্বোধনের পর চাষাড়ায় কাউন্টার বসানো হলো; সেখান থেকে কাউন্টার সরিয়ে নিতে বাস মালিক সমিতির লোকজন ক্রমাগত চাপ দেয়। আজ দুপুরের দিকে ওই সমিতির নেতা দিদার ও জিলানির নেতৃত্বে ১৫-২০ জন ব্যক্তি গিয়ে কাউন্টারের ছাতা ফেলে কাউন্টারের লোকজনকে সরিয়ে দেয়।’

শুক্রবার চাষাড়ার কাউন্টার তুলে দেয়ার পর শনিবার সকালে আবার কাউন্টার বসাতে গেলে ফের বাধা দেওয়া হয়। এ সময় কাউন্টারে ভাঙচুর চালানো হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। এদিকে মেট্রো হলের সামনে থাকা কাউন্টারটিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মেট্রো হলের সামনের বিআরটিসির বাস কাউন্টারটি তালা মারা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শিবু মার্কেটেও বাধার সম্মুখীন হচ্ছে বিআরটিসি বাস।

এদিকে শুক্রবার চাষাড়ায় বিআরটিসির কাউন্টার তুলে দেওয়ার পর প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েও পাননি বলে জানান ডিপো ম্যানেজার জেডএ কামরুজ্জামান। তিনি জানান, এ বিষয়ে এসপি অফিসে জানালে সেখান থেকে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর একেএম শরফুদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়। তাকে (শরফুদ্দিন) বিষয়টি অবহিত করলে তিনি বাস মালিক সমিতির সাথে মীমাংসা করতে পরামর্শ দেন।

এ ব্যাপারে শরফুদ্দিন বলেন, ‘তাঁকে (ডিপো ম্যানেজার) মীমাংসার কোন কথা বলেনি। বিষয়টি আমার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এবং থানা পুলিশে জানাতে বলেছি।’

দীর্ঘদিন পর বিআরটিসি’র এসি বাস চালু হওয়াতে খুশি ছিল নারায়ণগঞ্জবাসী। কিন্তু শুরুতেই বাধার মুখে পড়ে এই সার্ভিসটি এখন বন্ধ হওয়ার পথে। বিআরটিসি’র ডিপো ম্যানেজার বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জবাসী এবং প্রশাসনের সহায়তা ছাড়া এ রুটে বাস চালানো সহজ নয়।’

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-২) মো. সাজ্জাদ রোমন বলেন, ‘বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অবগত আছি। এ বিষয়ে ট্রাফিকের এএসপিকে নির্দেশনা দিয়েছেন পুলিশ সুপার মহোদয়। বিআরটিসি কর্তৃপক্ষকে সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ দায়ের করতে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে দ্রুতই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ