সোমবার ২১ অক্টোবর, ২০১৯

শহরের তিনটি সড়ক বেহাল, ভোগান্তি

শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮, ১৮:৫৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ শহরের তিনটি সড়কের বেহাল অবস্থা। সড়কের বিভিন্ন স্থানে ভেঙ্গে গিয়ে পিচ-পাথর-ইট উঠে সৃষ্টি হয়েছে খানাখন্দের। এতে যানবাহন চলাচলে চরম বিঘ্ন ঘটছে। ফলে সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। র্দুভোগে পড়ছে যাত্রীসাধারণ। সড়ক তিনটি হলো নবাব সলিমুল্লাহ, নবাব সিরাজউদ্দৌলা ও ঈশা খাঁ সড়ক।

শুক্রবার (২০ জুলাই) দেখা যায়, নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের মিশনপাড়া থেকে খানপুর মেট্রো হল পর্যন্ত সড়কের উভয় পাশের বিভিন্ন অংশ ভাঙ্গা। এতে সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় গর্তের। হেলে-দুলে যানবাহন চলছে। ধূলায় আচ্ছন্ন হয়ে যায় ভাঙ্গা সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচলের সময়।

রিকশাযাত্রী আনোয়ার হোসেন বলেন, সড়কটি দীর্ঘ দিন ধরে বেহাল। এতে নগরবাসীকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। বৃষ্টি হলে সড়কের গর্তে পানি জমে ভোগান্তি আরও বেড়ে যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, নবাব সিরাজউদ্দৌলা সড়কের খানপুর মেট্রো হলের সামনে থেকে ১ নম্বর রেলগেট এলাকার ফলপট্টি পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন অংশ বেহাল। সড়কের মেট্রো হলের সামনের অংশ ভেঙ্গে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের মোড়েও বড় বড় গর্ত। স্থানীয় লোকজন বলেন, গর্তের কারণে প্রায়ই ওই সড়কে দূর্ঘটনার কবলে পড়ে যানবাহন। বেহাল সড়কটিতে সকাল, দুপুর, রাতে যানজট লেগেই থাকে।

নগরের খানপুর এলাকার বাসিন্দা আক্তার হোসেন বলেন, মেট্রো হলের সামনের সড়কের গর্তে পানি জমায় যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এ কারণে ওই সড়কে রিকশা চালকেরা যেতে চায় না। যেতে চাইলেও অতিরিক্ত ভাড়া হাঁকান।

আমলাপাড়া এলাকার বাসিন্দা শাহীন খান বলেন, সড়কের এ অবস্থার করণে স্বস্তিতে চলাচল করতে পারছে না নগরবাসী।

অন্যদিকে ঈশা খাঁ সড়কের খানপুর থেকে কিল্লারপুল পর্যন্ত সড়কটিও বেহাল। সড়কের খানপুর ৩০০ শয্যার হাসপাতালের পেছন থেকে কিল্লারপুল পর্যন্ত অংশ বেশি খারাপ। এ অংশে সড়ক থেকে পিচ-পাথর-ইট উঠে গেছে।

খানপুর এলাকার বাসিন্দা মো. মুন্না বলেন, জেলা প্রশাসকের বাসভবনের সামনের সড়কের অংশও বেহাল।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন সূত্র জানায়, ঢাকা ওয়াসার রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি ও পানি সরবরাহ করার পাইপলাইনের ফুটো দিয়ে পানি চুইয়ে নবাব সলিমুল্লাহ রোড ভেঙ্গে গেছে। কয়েক দফা সংস্কার করা হলেও পানির কারণে সড়কটি আবার ভেঙ্গে যাচ্ছে। সিটি কর্পোরেশন রাস্তার ক্ষতিপূরণ চেয়ে ঢাকা ওয়াসাকে কয়েক দফা চিঠি দিয়েছে। কিন্তু ওয়াসা কোনো জবাব দেয়নি।

ঢাকা ওয়াসার নারায়ণগঞ্জ মডস জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী এ কে এম মসিউল আলম চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পানি সরবরাহ লাইনের যেসব স্থানে ফুটো আছে, সেগুলো ঠিক করে দেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুর রশিদ বলেন, নগরের এই ৩ সড়কই ব্যস্তময়। ভাঙ্গা সড়ক দিয়ে যানবাহন ধীরগতিতে চলাচলের কারণে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। সড়কগুলো সংস্কার করা হলে যানবাহন স্বাভাবিক গতিতে চলাচল করতে পাড়বে। তখন যানজট অনেকাংশে কমে যাবে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আজগর হোসেন বলেন, বর্ষায় কাজ করলে স্থায়িত্ব কম হয়। এ কারণে বর্ষা শেষ হলেই সড়কগুলোর কাজ শুরু করা হবে। তিনি জানান, সড়ক ৩ টি সংস্কারের জন্য তাঁরা দরপত্র আহ্বানের প্রস্তুতি সেরে রেখেছেন।

সূত্র: প্রথম আলো

সব খবর
জনদুর্ভোগ বিভাগের সর্বশেষ