মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর, ২০১৯

শরীফ উদ্দিন সবুজের লেখা গল্পে সিনেমা ‘আম কাঁঠালের ছুটি’

রবিবার, ২৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৪০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শরীফ উদ্দিন সবুজের লেখা গল্পের বই ‘মইন্না ভাই বল্লা রাশি’ অবলম্বনে পূর্ণ্যদৈর্ঘ্য শিশুতোষ সিনেমা ‘আম কাঁঠালের ছুটি’র নির্মাণ শেষ হয়েছে। চলচ্চিত্রকার নুরুজ্জামান ডালিমের চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় ইতিমধ্যে সিনেমার টাইটেল ডিজাইনও চূড়ান্ত হয়ে গেছে। এ বছরের ডিসেম্বরেই তা মুক্তি পাবে।

সিনেমাটির পরিচালক নুরুজ্জামান ডালিম জানান, সিনেমার কাজ প্রায় শেষ। এখন শুধু সাউন্ডের মিক্সিং-মাস্টারিং বাকি। ৫.১ ডলবি ডিজিটাল সাউন্ড ডিজাইনের কাজ চলছে। ছবির গল্পটা আমরা যেভাবে বড় হয়ে উঠছি সে সময়কার গল্প। এখনকার যুবক বাবা-মায়েরা তাদের সময়টা খুঁজে পাবেন এ সিনেমাতে আর সন্তানরা খুঁজে পাবেন আরেকটি জীবনের গল্প যে জীবনটি মাত্র বিশ-পঁচিশ বছর আগে তাদের বাবা-মায়েরা পার করে এসেছে। কিন্তু প্রযুক্তিঘেরা এখনকার নগর জীবনে যে জীবনটি অনেক অচেনা। ছবিটি একটি গ্রামের গল্প। একটি ছেলে গ্রামে গিয়ে তার চাচাত ভাই বোনদের সাথে ঘুরে বেড়ায়। আর নানান অচেনা মজার ঘটনার সম্মুখিন হয়। ছবিটির চরিত্রে অধিকাংশই শিশুশিল্পী। শিশুশিল্পী জোবায়ের, লিয়ন, আরিফ মূল চরিত্রে অভিনয় করেছে। সেন্সর শেষ করে বাচ্চাদের স্কুল ছুটির মৌসুমে চলতি বছরের ডিসেম্বরের শেষের দিকে ছবিটি সিনেমা হলে মুক্তি পাবে বলে নুরুজ্জামান ডালিম আশা প্রকাশ করেন। শিশুতোষ সিনেমাটিতে দর্শক অসাধারণ ভালো কিছু দেখতে পাবেন এবং তৃপ্তি পাবে বলে প্রত্যাশা করছেন তিনি। ছবিটি সর্ব্বোচ্চ সংখ্যক সিনেমা হলে মুক্তি দেয়ার চেষ্টা করা হবে বলে তিনি জানান।

এদিকে ‘মইন্না ভাই বল্লা রাশি’ গল্পের বইয়ের লেখক শরীফ উদ্দিন সবুজ পূর্ণ্যদৈর্ঘ্য শিশুতোষ সিনেমা ‘আম কাঁঠালের ছুটি’ তৈরি প্রসঙ্গে বলেন, আমার লেখা ‘মইন্না ভাই বল্লা রাশি’ বইটি ২০১৪ সালে চারুলিপি থেকে বের হয়েছিলো। বইটির তিনটি সংস্করণ ইতিমধ্যে ছাপা হয়েছে, সাড়াও পেয়েছিলাম ভীষণ। সাধারণত শিশুদের জন্য লেখকরা ভূতের, গোয়েন্দা গল্প লেখেন। আমারও ভূতের গল্পের বই আছে। কিন্তু আমি চেয়ছি ভিন্ন কিছু গল্প লিখতে। যেগুলি লেখা হয়না, সেসব গল্প আমি শিশুদের জন্য লিখেছি। বাচ্চারাও হয়তো ওটাকে ভালোভাবেই নিয়েছে। ওই বইয়ের গল্পগুলোর উপর ভিত্তি করে ‘আম কাঁঠালের ছুটি’ শিশুতোষ ছবিটি তৈরি হচ্ছে। চলচ্চিত্রটা আসলে বানানোর উপর অনেকটা নির্ভর করে। শিশু দর্শকরা কিভাবে ছবিটিকে নেয় সেটি দেখার বিষয়। তবে এই চলচ্চিত্রটা আমার জন্য একটি স্বীকৃতি। নারায়ণগঞ্জে এর আগে কারো লেখা নিয়ে চলচ্চিত্র তৈরি হয়নি। আমার লেখা গল্প নিয়ে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি হচ্ছে এটি অত্যন্ত গৌরবের ও সম্মানের বিষয়।

প্রসঙ্গত,শরীফ উদ্দিন সবুজের এ পর্যন্ত ১৬ টি বই বের হয়েছে। একটি ব্যাতিত বাকি সবগুলোই সায়েন্স ফিকশন ও শিশুতোষ গল্প।

সব খবর
শিল্প ও সাহিত্য বিভাগের সর্বশেষ