সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

শনিবার ৩শ’ শয্যা হাসপাতালে নার্সেস এসোসিয়েশনের নির্বাচন

বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:৪৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের নার্সেস এসোসিয়েশনের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনের ১৫টি পদে লড়ছেন দুই প্যানেলের ২৮ জন প্রার্থী। আগামী শনিবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে এ নির্বাচন। তবে ইতিমধ্যে যুগ্ম সম্পাদক পদে মাহমুদুল হাসান ও দপ্তর সম্পাদক পদে রোকেয়া বেগম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

নার্সেস এসোসিয়েশন নির্বাচন উপলক্ষে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে শহরের খানপুর এলাকায় অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ বিশিষ্ট হাসাপাতালে। বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, প্রার্থীরা ভোটারদের কাছে ছুটছেন। নার্সিং পেশায় নিযুক্তদের উন্নয়ন ও বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। চিকিৎসকদের কক্ষেও ছুটে বেড়াচ্ছেন তাদের সমর্থন পেতে। হাসপাতালের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও দোয়া প্রার্থনা করছেন নির্বাচনে অংশগ্রহণকারীরা।

হাসপাতালের নার্স ও প্রার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এর আগে নির্বাচন ছাড়াই বৈঠকের মাধ্যমে সংখ্যাগরিষ্ঠের মতামত অনুযায়ী কমিটি নির্ধারণ করা হতো। তবে এবার ওই পদ্ধতিতে কমিটি নির্ধারণের বিষয়ে অসম্মতি জানান অনেকে। পরিপ্রেক্ষিতে এ নির্বাচনের আয়োজন করা হয়েছে।

নির্বাচনে কুলসুম-আলমগীর পরিষদ ও শহিদুননেছা-জলিল পরিষদ নামে পৃথক দু’টি প্যানেল অংশগ্রহণ করেছে। কুলসুম-আলমগীর প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন বলেন, নির্বাচন উপলক্ষে হাসপাতালে উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে। জয়ের বিষয়ে আমরা শতভাগ আশাবাদী।

নির্বাচনী ইশতেহারের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা আমাদের ইশতেহারে আমাদের প্রতিশ্রুতির কথাগুলো উল্লেখ করেছি। আমরা নার্সদের সমস্যা নিয়ে কাজ করবো, সংগঠনটির নিবন্ধন, কার্যালয় প্রতিষ্ঠা করার জন্য কাজ করবো। মূলত নার্সিং পেশার উন্নয়ন নিয়ে কাজ করবো।

অন্যদিকে জয়ের আশা প্রকাশ করেছেন বিপরীত প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আব্দুল জলিল। তিনি বলেন, জয়ী হলে নার্সিং অফিসারদের স্বার্থ রক্ষা, কল্যাণ ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করবো।

এদিকে উৎসবমুখর পরিবেশে সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দেয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন নির্বাচন কমিশনার হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. শামসুদ্দোহা সঞ্চয়। তিনি বলেন, উৎসবের আমেজে প্রার্থীরা তাদের প্রচারণা চালিয়েছে। আমরা চাই নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু পরিবেশে হোক। আমরাও একই লক্ষ্যে কাজ করছি। আমরা চাই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে যোগ্য নেতৃত্ব বেরিয়ে আসুক।

কুলসুম-আলমগীর পরিষদ প্যানেলের প্রার্থীরা হলেন- সভাপতি পদে হাজী উম্মে কুলসুম, সিনিয়র সহসভাপতি পদে হাজী মোহাম্মদ ছগির হোসেন, সহসভাপতি পদে হালিমা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক পদে আলমগীর হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক পদে মাহমুদুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মোহাম্মদ মতিউর রহমান, কোষাধ্যক্ষ পদে বিউটি রানী দাস, বিজ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ সম্পাদক পদে মঞ্জুরুল ইসলাম, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে শাহনাজ আক্তার, দপ্তর সম্পাদক পদে রোকেয়া বেগম, প্রচার সম্পাদক শামসুন্নাহার ইতি, ধর্ম ও সমাজ কল্যান সম্পাদক গুলশান আরা। এছাড়া কার্যকরী সদস্য পদে শাহানারা খাতুন, মাকসুদা আক্তার, সীমা মন্ডল।

শহিদুন নেছা-জলিল পরিষদে রয়েছেন সভাপতি পদে শহিদুন নেছা, সিনিয়র সহসভাপতি পদে জাহানারা বেগম, সহসভাপতি পদে শিরিন আক্তার, সাধারণ সম্পাদক পদে আব্দুল জলিল, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে নির্মলা হীরা, কোষাধ্যক্ষ পদে মো. আরিফুজ জামান, বিজ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ সম্পাদক পদে বিউটি বিশ্বাস, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মিলন রানী মন্ডল, প্রচার সম্পাদক আনোয়ারা বেগম, ধর্ম ও সমাজ কল্যান সম্পাদক হাজী উম্মে কুলসুম। এছাড়া কার্যকরী সদস্য পদে শাহনাজ আক্তার, মোসা. ফেরদৌসী, নাসিমা আক্তার।

নির্বাচন কমিশনাররা হলেন- নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা হাসপাতালের সেবা তত্ত্বাবধায়ক শক্তি শর্মা, উপসেবা তত্ত্বাবধায়ক আয়েশা আক্তার, আবাসিক চিকিৎসক ডা. শামসুদ্দোহা সঞ্চয়, গাইনী বিভাগের সিনিয়র কনসাল্টেন্ট ডা. জাহাঙ্গীর আলম, হাসপাতাল তত্ত্বাবধায়কের একান্ত সচিব মো. সিদ্দিকুর রহমান। নির্বাচনে মোট ভোট প্রদান করবেন ১৭২ জন ভোটার।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ