সোমবার ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

লবণের দাম বৃদ্ধি নিয়ে গুজব, আটক ১

মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৫১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ‘লবণের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে’ এমন গুজব ছড়িয়েছে নগরীর সর্বত্র। নগরীতে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) সকাল থেকে লবণের মূল্য বৃদ্ধির গুজব ছড়িয়ে পড়লে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয়কারী খুচরা ও পাইকারি বাজারে ক্রেতাদের ভিড় বেড়ে যায়। অন্যান্য দিনের তুলনায় লবণ বিক্রির পরিমাণ বেড়ে গেছে কয়েক গুণ।

এদিকে লবণের এই দাম বৃদ্ধির গুজবের বিষয়ে তৎপর জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ। ফেসবুকে লবণের দাম বৃদ্ধির গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আব্দুল করিম নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

‘বেড়েছে লবণের দাম। কেজি প্রতি ১০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে, দাম বাড়বে ২০০ পর্যন্ত। আরও বাড়তে পারে।’ নারায়ণগঞ্জ নগরী জুড়ে সারাদিন চলছে এমন গুজব। সকলের মুখেই একই কথা। আর গুজবে কান দিয়ে নগরীর বাজারগুলোতে পড়েছে লবণ কেনার হিড়িক। ক্রেতারা একসঙ্গে কিনে নিচ্ছেন ৪ থেকে ৫ কেজি লবণ। অন্যদিকে খুচরা বিক্রেতাদের লবন শেষ হওয়াতে ভিড় করছেন নগরীর বিভিন্ন পাইকারি দোকানে।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে নগরীর দিগুবার বাজার ঘুরে দেখা যায় এমন দৃশ্য। বাজার করতে আসা প্রায় সবার হাতেই লবণের প্যাকেট। ক্রেতাদের ভিড় আর লবণের চাহিদা দেখে অনেক বিক্রেতাই লবণের দাম বাড়িয়ে রাখতে শুরু করেছে। আবার মজুদ থাকা সত্ত্বেও অনেকে বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন। জানাচ্ছেন, লবন শেষ।

হারুন ট্রেডার্স নামে একটি পাইকারি দোকানে একজন খুচরা বিক্রেতা এসে লবন চাইলে দোকানের ক্যাশে বসা ব্যক্তি জানান, লবন নেই। পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে দোকানের ভেতর থেকে একজন বেরিয়ে এসে বলেন, লবন আছে।

এদিকে এমন গুজবে লবন বিক্রি বেড়েছে কয়েক গুণ। নগরীর পুরাতন ব্যাংক রোডের নিউ একে ট্রেডার্সের ম্যানেজার প্রবণ সাহা জানান, সাধারণত যে হারে লবন বিক্রি হয় আজ তার চেয়ে চার গুণ লবন বিক্রি হয়েছে।

নগরীর প্রধান বাজার দিগুবাবুর বাজারে লবন ভর্তি ব্যাগ হাতে তানহা বানু। কথা হয় তার সাথে। তিনি বলেন, ‘শুনছি পিয়াইজের মত লবণের দাম বাইড়া গেছে। বাজারে আইসা দেখি ৩৫ টাকা। তাই কিন্না নিলাম।’

মো. রহমান বলেন, ‘শুনেছি দাম নাকি বেড়েছে। তবে দাম বাড়ার কোনো কারণ দেখছি না। অফিসেও সবাই বলাবলি করছিল। আমার স্ত্রী ফোন করে বললো তাই এক কেজি কিনে নিলাম।’

জয় তারা ভান্ডার নামে দোকানের লোকনাথ দাস বলেন, ‘লবণের দাম বাড়েনি। প্যাকেটের গায়ে ৩৫ টাকা লেখা, ৩৫ টাকাই বিক্রি হচ্ছে।’

গুজব বিষয়ে তিনি বলে, ‘দাম বৃদ্ধির কথাটা শুনেছি। তবে এটা কতটা সত্য তা জানি না। মূলত মূল্য বৃদ্ধির কথা ছড়ানোর পড় থেকেই বিক্রি বেড়ে গেছে।’

এদিকে লবনের এই দাম বৃদ্ধির গুজবের বিষয়ে তৎপর জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ। জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন ফেসবুকে এক বার্তায় বলেন, ‘বর্তমানে দেশে চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি লবন মজুদ আছে। সুতরাং গুজবে বিভ্রান্ত হবেন না।’

এদিকে ফেসবুকে লবনের দাম বৃদ্ধির গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আব্দুল করিম নামে একজনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান।

তিনি জানান, গুজব প্রতিরোধে জেলা পুলিশ তৎপর। আমাদের পুলিশ সুপার মহোদয় বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন করেছেন। পুলিশ কালিরবাজার, বউ বাজার, দিগুবাবুর বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে মাইকিং করেছে। মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টি সম্পূর্ণ গুজব। কেউ এমন গুজব ছড়ালে কিংবা গুজবের সুবিধা নিয়ে বেশি দাম রাখলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ