শুক্রবার ১৫ নভেম্বর, ২০১৯

রূপগঞ্জ ইউনিয়নে পৌছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম, রাত পোহালে ভোটগ্রহণ

রবিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৪৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: রূপগঞ্জ উপজেলার রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের যাবতীয় সরঞ্জাম ইতিমধ্যে পৌছে গেছে। রাত পোহালেই সোমবার (১৪ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে শুরু হবে ভোটগ্রহণ। এই নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে।

এদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছেন জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ ও জেলা নির্বাচন অফিস। নির্বাচনে র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি বিজিবিও মোতায়েন করা হয়েছে।

জানা গেছে, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. ছালাউদ্দিন ভূঁইয়া (নৌকা) ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী কবির হোসেন (মোটরসাইকেল) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইতিমধ্যে ১নং ওয়ার্ডে আলমগীর হোসেন, ৪নং ওয়ার্ডে রিটন প্রধান, ৪-৫-৬নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে জিন্নাত আরা জিসান এবং ৭-৮-৯নং ওয়ার্ডে জাহানারা আক্তার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

ইতিমধ্যে নির্বাচনী অপরাধ আমলে ও সংক্ষিপ্ত বিচারের জন্য ৫ দিনের জন্য নির্বাচন কমিশন থেকে নারায়ণগঞ্জের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মোহসিনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তিনি ভোটের আগের ২ দিন, ভোটের দিন ও পরের ২ দিন মোট ৫ দিন মাঠে থাকবেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, রূপগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে ১৭টি ভোট কেন্দ্রে ৩৩ হাজার ১৩৭ জন ভোটার রয়েছেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে কোন বিশৃঙ্খলা ছাড়াই নির্বাচন সম্পন্ন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এদিকে আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে জেলা পুলিশের মুখপাত্র সাজ্জাদ রোমন জানান, শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্নের লক্ষে পুলিশের ১১টি মোবাইল টিম ও ৩টি স্ট্রাইকিং টিম, ডিবির ৪টি টিম সার্বক্ষণিক টহলরত থাকবে। নির্বাচনের দিন জেলা প্রশাসনের নিবার্হী ম্যাজিস্টেটের নেতৃত্বে পুলিশের ৩টি টিম থাকবে। নির্বাচনে মোট ৩২৯ জন পুলিশ ও ২০৪ জন আনসার ও গ্রাম পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। প্রতিটি সাধারন ভোটকেন্দ্রে পুলিশ আনসার ও গ্রাম পুলিশ নিয়ে ২০ জন আর গুরত্ত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ২১ জন সদস্য ভোটগ্রহণ শেষ না হাওয়া পর্যন্ত সশস্ত্র অবস্থায় সার্বক্ষণিক মোতায়েন থাকবে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ