বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

রমজানের প্রথম জুমা: মসজিদগুলোতে উপচে পড়া ভিড়

শুক্রবার, ১০ মে ২০১৯, ১৬:৩২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: পবিত্র মাহে রমজানের প্রথম জুমায় আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় শহরের প্রায় প্রতিটি মসজিদেই ছিলো মুসল্লিদের ভিড়। বেশিরভাগ মসজিদের স্থান সংকুলান না হওয়ায় রাস্তায় চলে আসে নামাজের সারি। কোন কোন মসজিদের সিড়িতেও জামাত দাড়িয়ে যায়৷

শুক্রবার (১০ মে) জুমার নামাজের সময় শহরের চাষাড়া নূর মসজিদ, ২ নং রেলগেট এলাকার ফকিরটোলা মসজিদ, শহরের ডিআইটি জামে মসজিদ, চাষাড়া রেললাইন জামে মসজিদ, মাসদাইরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদসহ প্রায় প্রতিটি মসজিদে মুসল্লিদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এসব মসজিদে নামাজের আগেই মুসল্লিদের সারি চলে আসে রাস্তায়। রেললাইন মসজিদের সামনে একপাশের অর্ধেক রাস্তায় চলে আসে মুসল্লিদের নামাজের কাতার। নগরীর প্রধান মসজিদগুলোর মধ্যে অন্যতম নূর মসজিদে দেখা গেছে মসজিদের ভিতরে জায়গা না পেয়ে অনেকেই নামাজ পড়েছেন সিঁড়িতে। প্রায় একই চিত্র ছিলো ডিআইটি মসজিদের। সেখানেও মসজিদ পশের সড়ক বন্ধ করে দিয়ে সাময়িকভাবে মুসল্লিদের নামাজের জায়গা করে দেয়া হয়েছে।

নামাজের আগে প্রতিটি মসজিদেই বিশেষ বয়ান দেওয়া হয়। এতে ধর্মীয়, সামাজিক ও রমজানের তাৎপর্যসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মসজিদের ইমাম ও খতিবরা।

নামাজ শেষে সাইফুল ইসলাম বলেন, রমজান মাস হলো গুনাহ মাফের মাস। এ মাসে আল্লাহর কাছে নিজ গুনাহের মার্জনা চাইতেই সবার সঙ্গে নামাজে শরিক হয়েছি। কে জানে আল্লাহ কার হাত কবুল করবেন। তাই সবার সঙ্গে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নিয়েছি। আল্লাহ আমাদের সবাইকে সঠিকভাবে নামাজ আদায়ের তৌফিক দান করুন।

রহিম শেখ বলেন, শুক্রবার সবাই জুমার নামাজে অংশ নেন। তবে রমজানের সময় মুসল্লিরা সবাই আল্লাহর সান্নিধ্য লাভের আশায় জুমার নামাজ পড়তে আসেন। প্রতি বছরই এমন ভিড় হয়, এবারো হয়েছে। সবাই আল্লাহর কাছে বিশেষ প্রার্থনা ও এ মাসের ফজিলতগুলো পালন করতে এখানে সমাবেত হয়েছেন।

প্রতিটি মসজিদের নামাজের পর মুসলিম উম্মাহের জন্য এবং বিশ্ব শান্তির জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এতে সবার গুনাহ মাফ, দেশের শান্তি সমৃদ্ধি ও বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্যও দোয়া করা হয়।

সব খবর
ধর্ম ও নৈতিকতা বিভাগের সর্বশেষ