সোমবার ২১ অক্টোবর, ২০১৯

যুবলীগ নেতা বিপ্লবের হাটে অতিরিক্ত হাসিল আদায়

শুক্রবার, ৯ আগস্ট ২০১৯, ২০:১৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সদর উপজেলার তল্লার আজমেরীবাগ এলাকার অস্থায়ী কোরবানির পশুর হাটে অতিরিক্ত হাসিল আদায় করা হচ্ছে। সিটি কর্পোরেশনসহ জেলার সকল হাটে সরকার নির্ধারিত ৫ শতাংশ হাসিল নেওয়ার কথা থাকলেও এই হাটটিতে ৬ শতাংশ করে হাসিল নেওয়া হচ্ছে। অস্থায়ী এই পশুর হাটের ইজারাদার ফতুল্লা থানা যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লব।

সদর উপজেলায় ১৭টি স্থানে অস্থায়ীভাবে কোরবানির পশুর হাটের জন্য দরপত্র আহ্বান করে উপজেলা প্রশাসন। গত সোমবার (৫ আগস্ট) সদরের তল্লার আজমেরীবাগ এলাকায় ৭১ হাজার টাকার বিনিময়ে পশুর হাটের ইজারা পান যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লব। তবে এই হাটে সরকারের নির্দেশ অমান্য করে ৬ শতাংশ হাসিল আদায় করছেন বিপ্লব। গত সোমবার থেকেই এভাবে অতিরিক্ত হাসিল আদায় করা হচ্ছে।

এদিকে দরপত্রে হাটটি নিজস্ব জমিতে স্থাপন করা হয়েছে উল্লেখ করলেও জমিটি জানে আলম বিপ্লবের নয় বলে জানান স্থানীয়রা। তারা জানান, উক্ত জমিটি মোহাব্বত হাজীর। কিন্তু জানে আলম জায়গাটি নিজের উল্লেখ করেই হাটের ইজারা নিয়েছেন।

এসব বিষয়ে জানতে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের অনুরূপ সদর উপজেলার সকল অস্থায়ী পশুর হাটে ৫ শতাংশ হাসিল নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া আছে। নিয়ম বহির্ভূত কোনো কাজ করলে তা অবশ্যই অবৈধ। আমার এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

কিছুক্ষন পর ইউএনও নাহিদা বারিক প্রতিবেদকের মুঠোফোনের নম্বরে পুনরায় কল করে জানান, ‘অধিক হাসিল আদায়ের বিষয়ে ইজারাদার জানে আলম বিপ্লবকে সতর্ক করা হয়েছে। এ বিষয়ে আরো কোনো তথ্য থাকলে অবশ্যই জানাবেন।’

এ বিষয়ে ইজারাদার যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লবের মুঠোফোনের নম্বরে যোগাযোগ করলে অতিরিক্ত হাসিল আদায়ের বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি। জানে আলম প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমরা গতবারও ৬ শতাংশ হাসিল নিয়েছি। আসলে আমরা সরকারি নির্দেশনার বিষয়টি জানতাম না। ইউএনও ম্যাডাম আমাদের সতর্ক করে দিয়েছেন। আমরা এখন থেকে ৫ শতাংশই হাসিল নিচ্ছি।’

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ