বুধবার ২১ এপ্রিল, ২০২১

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেয়ে ৫৮ দিন পর হত্যা মামলা, গ্রেফতার ৩

মঙ্গলবার, ২ মার্চ ২০২১, ১২:১১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার দাপায় নিহত ট্রাক চালক ইয়াকুবের লাশ উদ্ধারের ৫৮ দিনের মাথায় অপমৃত্যু মামলাটি হত্যা মামলা হিসেবে রেকর্ড করেছে পুলিশ৷ এ মামলায় তিনজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে৷

সোমবার (১ মার্চ) সকালে নিহতের স্ত্রী জরিনা বেগম বাদী হয়ে আটজনের নাম উল্লেখসহ ১১ জনকে আসামি করে ফতুল্লা মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এর আগে রবিবার বিকেলে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেয়ে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে দাপা ও আলীগঞ্জ এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে তিনজনকে গ্রেফতার করে৷

গ্রেফতারকৃতরা হলো: ফতুল্লা থানার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার হাজী শফিউল্লার ভাড়াটিয়া মৃত ওসমান গনির পুত্র হোসেন সর্দার (৫০), আলীগঞ্জ পূর্বপাড়া মসজিদ গলির মৃত রশিদ মিয়ার পুত্র মনির হোসেন(৪০) ও দাপা ইদ্রাকপুরের মৃত জসিম মিয়ার পুত্র বিলাল(৪০)। গ্রেফতারকৃতদেরকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেয়ে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে৷ এই মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে৷

উলেখ্য, গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর ফতুল্লা থেকে নিখোঁজ হয় ট্রাকচালক ইয়াকুব। নিখোঁজের পরদিন ট্রাক চালক ইয়াকুবের চাচা বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন। নিখোঁজের পাঁচ দিন পর চলতি বছরের ২ জানুয়ারি রাতে ফতুল্লার আলীগঞ্জের জামান মিয়ার ঘাট সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীর তীরবর্তী স্থান থেকে ট্রাক চালক ইয়াকুবের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ৷ সে সময় অপমৃত্যু মামলা নেয় পুলিশ৷

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ