মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর, ২০২০

মে দিবসে শ্রমিক সংহতির মানববন্ধন

বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২০, ২২:২৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: শ্রমিক দিবসে বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতি নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রতিবাদী মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।

শুক্রবার (১ মে) সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতি নারায়ণগঞ্জ জেলার আহ্বায়ক অঞ্জন দাস ও সম্পাদক কাউসার হামিদ স্বাক্ষরিত এক যৌথ বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, আগামীকাল ১৩৪ তম শ্রমিক দিবস। ১৮৮৬ সালের এই পহেলা মে তারিখেই ৮ ঘন্টা কর্মঘন্টা নির্ধারণের দাবিতে আমেরিকার শিকাগো শহরকে উত্তপ্ত করেছিলো শ্রমিকরা। রক্ত দানের মধ্য দিয়ে শ্রমিকরা সেদিন তাদের দাবি আদায় করে নিয়েছিলো। এরপর থেকেই দিনটি গোটা পৃথিবীতে শ্রমিক, মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ের দিন হিসেবেই পালিত হয়। দিনটির ১৩৪ বছর অতিবাহিত হয়ে যাবার পরও আমরা দেখতে পাই একই দাবিতে এখনো শ্রমিকরা সংগ্রামরত। বরং শ্রমিকদের সাথে পূর্বের চেয়েও বেশি পাশবিকতার প্রমাণ বর্তমানে লক্ষ্য করা যায়। ভবন ধ্বসিয়ে কিংবা আগুনে পুরিয়ে শ্রমিক হত্যা সেই পাশবিকতারই সর্বোচ্চ রূপ।

বিবৃতিতে অঞ্জন দাস বলেন, পুরো পৃথিবী আজ এক ভয়ানক সংকটের মধ্যে বিদ্যমান। এখানে সবচেয়ে বেশি সমস্যা মোকাবেলা করতে হচ্ছে এদেশের নিন্ম আয়ের কর্মজীবি, মেহনতি মানুষকে। যেখানে কথা ছিলো এই করোনাকালীন সময়ে শ্রমিকদের যথাযথ পাওনাদি মিটিয়ে দিয়ে তাদের স্বাস্থ্যগত দিককে সবচাইতে বেশি মনযোগ দেয়া। সেখানে আমরা দেখলাম নারায়ণগঞ্জ, আশুলিয়া, গাজিপুরসহ নানান শ্রমিক অঞ্চলগুলোতে এখনো শ্রমিকরা তাদের বকেয়া বেতন আদায়ের দাবিতে আন্দোলন করে যাচ্ছে। ফ্যাক্টরি খোলা, বন্ধের খেলায় কিভাবে হাজার হাজার শ্রমিককে পায়ে হাটিয়ে গ্রাম থেকে কর্মক্ষেত্রে এনে আবার ফ্যাক্টরি বন্ধের ঘোষণা দেয়া হলো তাও আমরা দেখলাম। বর্তমানে শ্রমিকদের জীবনকে আর জীবনজ্ঞান করা হচ্ছে না। শ্রমিকেরা আজ শুধুই মালিকের মুনাফা তৈরির মেশিনে পরিণত হয়েছে।

কাউসার হামিদ বিবৃতিতে জানান, এবছর বিশেষ অবস্থার কথা মাথায় রেখেই আমরা শ্রমিক দিবসের সমাবেশকে সংক্ষিপ্ত করে এনেছি। আমরা আমাদের সকল আঞ্চলিক শাখার নেতা-কর্মীদের বাড়িতে অবস্থান করার পরামর্শই দিয়েছি। যেহেতু বিশেষ অবস্থা আর নারায়ণগঞ্জও করোনা আক্রান্ত জেলাগুলোর মধ্যে রেড জোনে রয়েছে, সেহেতু অবিলম্বে শ্রমিকদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে চলমান সকল কারখানা বন্ধ ঘোষণা, লেঅফ-ছাঁটাই বন্ধ ও পূর্ণ বেতনের দাবিকে সামনে রেখে সল্প পরিসরে আমরা আমাদের কর্মসূচি করছি। যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই সংবাদ মাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিও আমরা আশা করছি।

উক্ত কর্মসূচিতে গণসংহতি আন্দোলনের জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, নারী সংহতি নারায়ণগঞ্জ জেলার সম্পাদক পপি রাণী সরকার, গণসংহতি আন্দোলন জেলার রাজনৈতিক শিক্ষা সম্পাদক মশিউর রহমান রিচার্ড, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি শুভ দেব উপস্থিত থাকবেন বলে বিবৃতিতে জানানো হয়।

সব খবর
সংগঠন সংবাদ বিভাগের সর্বশেষ