বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল, ২০২১

মুজিববর্ষে নির্মিতব্য মণ্ডলপাড়ার মডেল মসজিদে থাকছে যেসব সুবিধা

শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৪৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: মুজিববর্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রায় ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হতে যাচ্ছে মডেল মসজিদ ও ইসালমিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র৷ ইতিমধ্যে এই মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নকশা (মডেল) অনুমোদিত হয়েছে৷ করা হয়েছে ভিত্তিপ্রস্তরও৷ নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নগরভবনের অদূরে জিমখানা মোড়ে নির্মিতব্য এই মসজিদে একসঙ্গে ১২০০ মুসুল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন৷

গত ১২ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ ও নারায়ণগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসাইন৷

নারায়ণগঞ্জ সিটি এলাকায় নির্মিত এই মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুশীলনের পাশাপাশি গণশিক্ষার মতো অনেক সামাজিক কার্যক্রম চলবে৷ এখামে নিয়মিত ইসলামি জ্ঞানচর্চা হবে৷

সিটি এলাকায় নির্মামাধীন এই মসজিদটি ‘এ’ ক্যাটাগরিতে পড়েছে৷ চারতলা বিশিষ্ট এ মসজিদের প্রতি ফ্লোরের আয়তন হবে ২৩৬০ বর্গমিটার৷ এ মসজিদে একসঙ্গে ১২০০ মুসুল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন।

মডেল মসজিদ প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, এই মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সে পাঠাগার, গবেষণা কেন্দ্র, ইসলামিক বই বিক্রয় কেন্দ্র, পবিত্র কোরআন হেফজ বিভাগ, শিশুশিক্ষা, অতিথিশালা, পর্যটকদের আবাসন, মৃতদেহ গোসলের ব্যবস্থা, হজযাত্রীদের নিবন্ধন ও প্রশিক্ষণ, ইমামদের প্রশিক্ষণ, অটিজম কেন্দ্র, গণশিক্ষা কেন্দ্র ও ইসলামি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র থাকবে।

এছাড়া ইমাম-মুয়াজ্জিনের আবাসনসহ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য অফিসের ব্যবস্থা এবং গাড়ি পার্কিং সুবিধা রাখা হয়েছে। মসজিদগুলোতে দ্বীনি দাওয়াত কার্যক্রম ও ইসলামি সংস্কৃতি চর্চার পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস, যৌতুক, নারীর প্রতি সহিংসতাসহ বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা রোধে সচেতনতা কার্যক্রমও পরিচালনা করা হবে৷ পাঠাগারে প্রতিদিন পাঠকরা পবিত্র কোরআন ও ইসলামিক বই পড়তে পারবেন। ইসলামিক বিষয়ে গবেষণারও সুযোগ থাকবে৷ মসজিদগুলো ধর্মের অপপ্রচার, অপব্যবহার ও অপব্যাখ্যা থেকে সমাজ ও রাষ্ট্রকে রক্ষা করতে ভূমিকা পালন করবে বলে আশা প্রকাশ প্রকল্পের সাথে সংশ্লিষ্টরা৷ এই মসজিদ নির্ণাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৫ কোটি ৬১ লাখ ৮১ হাজার টাকা।

এই মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর করার সময় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছিলেন, ‘শুধু নারায়ণগঞ্জে এই মডেল মসজিদ স্থাপিত হবে না, সারাদেশেই হবে। আর মডেল মসজিদ নির্মাণের জন্য যখন জায়গা চাওয়া হলো আমি এই জিমখানা মসজিদটির কথা বলি। কেননা পুরো জেলার মধ্যে সবচেয়ে পুরাতন মসজিদ হলো এটি। আজকে থেকেই মডেল মসজিদ নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে যাবে। মসজিদ সম্প্রসারণের জন্য আমি সিটি করপোরেশনের যে সামনের ভবনটি আছে সেটিও ছেড়ে দিয়েছি। তাই মসজিদ সম্প্রসারণের জন্য পাশের এই ভবনটিও ভাঙ্গা হবে। প্রধানমন্ত্রী আমাদের জন্য এত কিছু করেছেন সেজন্য আমরা যদি তার জন্য দোয়া না করি তাহলে আমরা অকৃতজ্ঞ হয়ে গেলাম। আমরা আশা করছি ২০২১ সালের মধ্যেই মসজিদটির কাজ সম্পূর্ণ হলে উদ্বোধন করবো।’

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ