বুধবার ১৪ নভেম্বর, ২০১৮

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রাখার দাবীতে স্মারকলিপি প্রদান

মঙ্গলবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:২০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ত্রিশভাগ মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রাখাসহ এগারো দফা দাবীতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা। এসময় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কোটাকে আমরা অর্থমুল্যে গ্রহন করিনি বরং এটাকে আমরা মুক্তিযোদ্ধা ও তার প্রজন্মের প্রতি জাতির সম্মান হিসেবেই বিবেচনা করেছি।

সমাবেশে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার এডভোকেট নুরুল হুদা বলেন, অনেকে বলেন বঙ্গবন্ধুর সময় থেকে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ছিলো এখন দরকার কি। কিন্তু বঙ্গবন্ধু হত্যার পর মুক্তিযোদ্ধা কোটা পাওয়া তো দূরের বিষয় মুক্তিযোদ্ধারা নিজেদের মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে পরিচয়ই দিতো না। কারন তখন সে পরিস্থিতি ছিলোনা। শতশত মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যার মতো ঘটনা ঘটেছে। প্রশাসনকে মুক্তিযুদ্ধের চেনতনাশূন্য করার পরিকল্পনা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ সরকার আসার পরে মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিশ্চিত করতে গিয়ে দেখা গেলো তখন মুক্তিযোদ্ধাদের তো বটেই তাদের সন্তানদেরও বয়স নেই সরকারি চাকরি নেওয়ার । তাই মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি সম্মান দেখানোর জন্য মুক্তিযোদ্ধার নাতিদের জন্য কোটা দেয়া হয়। কিন্তু জামায়াতে ইসলামী সর্বপ্রথম এর বিরোধীতা শুরু করে।

স্মারকলিপি প্রদানের আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নিচে অনুষ্ঠিত সমাবেশে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার আহ্বায়ক শরীফ উদ্দিন সবুজের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, সাবেক জেলা কমান্ডার সামিউল্লাহ মিলন, মুক্তিযুদ্ধকালীন কমান্ডার আমিনুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা কমান্ডার শাজাহান ভূইয়া জুলহাস, বন্দর উপজেলার ডেপুটি কমান্ডার কাজী নাসির, মুক্তিযোদ্ধা সামসুদ্দিন, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের জেলার সদস্য সচীব রেজাউল করিম রাজিব, সোনারগাঁ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড এর সভাপতি ছনিয়া আক্তার, শেখ কামাল মিয়া, ফারহানা দিবা, সৈয়দ রাশেদুল ইসলাম প্রমুখ।

শরীফ উদ্দিন সবুজ বলেন, ১৯৭৫ সালের পরে সরকারি চাকুরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিশ্চিত হয়নি। বরং বেছে বেছে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধীদের চাকুরিতে নিয়োগ করা হয়েছে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল করার পাশাপাশি মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সদস্যরা যাতে এ কোটায় চাকরি পায় সেটি নিশ্চিত করতে হবে। কোটায় চাকরির ব্যাপারে দূর্নীতি যাতে না হয় সেদিকে খেয়াল করতে হবে। তিনি সরকারি চাকরির বয়সসীমা ৩৫ করারও দাবী জানান।

সব খবর
সংগঠন সংবাদ বিভাগের সর্বশেষ