শুক্রবার ২৯ মে, ২০২০

মীরু বাহিনীর সন্ত্রাসী ভিপি রাজীব সংঘর্ষে নিহত

মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল ২০২০, ১৩:০০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: প্রতিপক্ষের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় রক্তাক্ত জখম ফতুল্লার পাগলা বাজার এলাকার সন্ত্রাসী রাজীব ওরফে ভিপি রাজীব হাসপাতালে মারা গেছে৷ এ ঘটনায় রাজীবের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন৷

ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহাদাত হোসেন জানান, সোমবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে সন্ত্রাসী ভিপি রাজীব ও প্রতিপক্ষ মিঠুন বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়৷ এতে গুরুতর জখম হয়ে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি হয় সে৷ রাত সাড়ে ১১টার দিকে মারা যায় ভিপি রাজীব৷

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাজীব ফতুল্লার পাগলা বউবাজার এলাকার হাসু তালুকদারের ছেলে। সে কুতুবপুরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী মীর হোসেন মীরু বাহিনীর সদস্য৷ ২০১৬ সালে মারধরের একটি ঘটনায় দায়ের করা মামলা নিয়ে রাজীব ও জেলেপাড়া এলাকার মিঠুন বাহিনীর সাথে দ্বন্দ্ব চলছিল৷ মিঠুন বাহিনীর কাউসারকে মারধরের ঘটনায় দায়ের করা মামলাটিতে আসামি করা হয় রাজীবকে৷ মামলাটি তুলে নেওয়ার জন্য মিঠুন ও কাউসারকে চাপ দিচ্ছিল রাজীব৷ এ নিয়েই সোমবার দুপুরে তাদের দুই বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়৷ এতে রক্তাক্ত জখম হয়ে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি হয় ভিপি রাজীব৷ পরে রাত ১১টার দিকে মারা যায় সে৷

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে ফতুল্লা থানার পরিদর্শক শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘দুপুরে ভিপি রাজীব তার বাহিনী নিয়ে জেলেপাড়া এলাকায় ঢুকে মামলা তুলে নিতে কাউসার হুমকি-ধমকি দেয়৷ এ সময় কাউসার ও মিঠু বাহিনী তাদের ধাওয়া করে৷ পরে আবারও লোকজন নিয়ে ওই এলাকায় যায় রাজীব৷ এ সময় এলাকায় বাড়িঘর-দোকানপাট ভাঙচুর করে তারা৷ পরে প্রতিপক্ষের লোকজনও ভিপি রাজীব ও তার লোকজনকে মারধর করে৷ গুরুতর আহত ভিপি রাজীব হাসপাতালে মারা যায়৷’

পরিদর্শক শাহাদাত হোসেন আরও বলেন, এ ঘটনায় রাজীবের বাবা হাসু তালুকদার বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতসহ ২৬ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন৷ অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে৷ তবে এখন পর্যন্ত কাউকে আটক কিংবা গ্রেফতার করা যায়নি বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা৷

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ