মঙ্গলবার ১৮ জুন, ২০১৯

মাউরা হোটেলসহ ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

রবিবার, ১৯ মে ২০১৯, ১৬:৪২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: রমজান মাসে বাজার মনিটরিংয়ের অংশ হিসেবে নগরীর কালীবাজার ও চারারাগোপ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়েছে। অভিযানে বিভিন্ন অপরাধে মাউরা হোটেলসহ ৫ প্রতিষ্ঠানকে ২৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রবিবার (১৯ মে) দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ভূমি কমিশনার (সদর) হাসান বিন মুহাম্মাদ আলীর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান পরিচালিত হয়।

তিনি জানান, রমজানে বিভিন্ন বাজার তদারকির লক্ষ্যে প্রথমে কালীরবাজারে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ধার্যকৃত মূল্যের বেশি মূল্যে পণ্য বিক্রি করায় ভোক্তা অধিকার আইনে ‘খাজা বাবা স্টোর’কে ৫ হাজার টাকা, মূল্য তালিকা না থাকায় এক তরকারি দোকানীকে ৩ হাজার এবং ওজন যন্ত্রের বিএসটিআই সনদ না থাকায় ‘মেসার্স মহব্বত আলী’ নামক এক ফলের আড়ৎদারকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ছাড়া ২টি খাবার রেস্টুরেন্টে অভিযান চালানো হয়। ‘মঈনীয়া’ ওরফে ভান্ডারি হোটেলে অভিযানকালে ট্রেড লাইসেন্স, খাবার বিক্রির অনুমোদন লাইসেন্স এবং কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সনদ কর্তৃপক্ষ দেখাতে পারেনি। এসব অপরাধে ওই হোটেল থেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। তার পাশেই মাউরা হোটেল নামে ব্যাপক পরিচিত রয়েল রেস্টুরেন্টে অভিযান চালানো হয়। নোংরা পরিবেশে রান্না করার অপরাধে এই হোটেল কর্তৃপক্ষকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসান বিন মুহাম্মদ আলী গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, জরিমানা আদায়ের পাশাপাশি সবাইকে সর্তক করা হয়েছে। আগামী অভিযানে যদি একই অবস্থা দেখা যায়; তাহলে বড় রকমের জরিমানা করা হবে।

তিনি বলেন, রমজানের নিত্যপণ্যের বাজার মূল্য সহনীয় এবং হাইকোর্ট কর্তৃক নিষিদ্ধ ৫২ পণ্য বাজারে এখনও রয়েছে কিনা অভিযানে সেদিকটা পূর্ণ লক্ষ্য রাখা হয়েছে। অসাধু মজুতদার এবং কোন খাদ্য ভেজালকারীকে ছাড় দেওয়া হবে না। এই রমজান মাসে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের এই অভিযানে সহায়তা করেন জেলা স্যানিটারী পরিদর্শক লিয়াকত আলী ভূঁইয়া ও বেঞ্চ সহকারী মোতালেব হোসেন। এ সময় থানা ও আর্মড পুলিশ উপস্থিত ছিল।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ