শুক্রবার ০৫ মার্চ, ২০২১

ভাস্কর্য হারাম বলা চলবে না: শ্রমিক নেতা পলাশ

শুক্রবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮:৫৭

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: কেন্দ্রীয় শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশ বলেছেন, নতুন করে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। পাকিস্তানি প্রেতাত্মারা এবং তাদের দোসররা নতুন করে ষড়যন্ত্র করছে। কোরআন হাদিসে কি আছে তা আমরা কিন্তু জানি। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে এতো লাফালাফি হলো কেন? ভাস্কর্য তো আরো রয়েছে বাংলাদেশে। বাবুনগরীর চট্টগ্রামের সার্কিট হাউজে তো জিয়াউর রহমানের ভাস্কর্য রয়েছে সেগুলো কি চোখে পরে না? আগে চট্টগ্রামে শেষ করেন তারপর ঢাকাতে আসেন। ঢাকা শহরে চিল্লা ফাল্লা করবেন আর ভাস্কর্য হারাম বলবেন। তা চলবে না।

সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ শহীদ মিনারে আয়োজিত সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ যাতে আর কখনো মাথা উচু করে দাড়াতে না পারে তার নীল নকশা এই ১৪ ডিসেম্বরেই বাস্তবায়ন করা হয়েছিলো। পাক হানাদার বাহিনী যখন বুঝতে পেরেছিলো তাদের পরাজয় সুনিশ্চিত ঠিক তখনই তারা মুক্তি পাগল বাঙালী জাতির মধ্য থেকে যারা দেশকে নেতৃত্ব দিবে, বাংলাদেশকে গড়ে তুলবে, যারা সফলতার রাস্তা দেখাবে তাদেরকে ডেকে নিয়ে তাদের নির্মমভাবে হত্যা করে। আজকে আমাদের শপথ হোক, এই বাংলার মাটিতে পাকিস্তানের প্রেতাত্মাদের কোনো ঠাই নাই। যতদিন আমরা বেঁচে থাকবো ততদিন পর্যন্ত আগামী প্রজন্মের কাছে এই খবর পৌছিয়ে দিতে থাকবো।

বক্তব্য শেষে কাউসার আহমদে পলাশের নেতৃত্বে একটি র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি চাষাড়া শহীদ মিনার থেকে শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে পুনরায় চাষাড়া শহীদ মিনার এসে শেষ হয়।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন রাজু, জাতীয় শ্রমিকলীগ ফতুল্লা আঞ্চলিক শাখার কোষাধ্যক্ষ মো. রুহুল আমিন প্রধান, সদর উপজেলা ইট ভাঙ্গা মেশিনারিজ মালিক সমিতির সভাপতি এম এ রাকিব, বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. আনিস মাষ্টার, সহসভাপতি মো. হারুন মোল্লা প্রমুখ।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ