সোমবার ৩০ নভেম্বর, ২০২০

‘ভাষা আন্দোলন হয়েছিল বলে স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে’

বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২২:৩০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: প্রবীণ শিক্ষাবিদ ও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার রাশিদুল হক বলেছেন, আমাদের বাংলাভাষার চর্চা যতটুকু করা প্রয়োজন ছিল ততটুকু করতে পারিনি।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের দেওভোগে ভূইয়ারবাগ এলাকায় বিদ্যানিকেতন হাই স্কুলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস এবং শহীদ দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলা একাডেমীর বাংলা ভাষা প্রচলন এবং এর ব্যবহারের জন্য যেটুকুু কাজ করার প্রয়োজন ছিল সেটা করতে পারেনি বলেই আমাদের প্রতিবছর ভাষা দিবসে সর্বস্তরে বাংলা ব্যবহারের দাবি তুলতে হয়।

তিনি বলেন, সর্বস্তরে বাংলার প্রচলন করতে হলে সরকারের উপর অনেক দায়িত্ব থেকে যায়। সেটি হলো জনসাধারণের মধ্যে বাংলা ব্যবহারের আইন প্রনয়ন করে বাধ্য করা। আমাদের ভাষা আন্দোলন হয়েছিল বলেই স্বাধীনতা অর্জন সম্ভব হয়েছিল। স্বাধীন বাংলাদেশের ৪৯ বছরেও আমরা সর্বস্তরে বাংলা ভাষার ব্যবহার কিংবা প্রচলন করতে পারছি না।

সময় টেলিভিশনের পরিচালক ও বার্তা প্রধান তুষার আবদুল্লাহ বলেন, আমাদের ভাষা আন্দোলনে নারী ভাষা সৈনিকদের নিয়ে গবেষনা হওয়া প্রয়োজন। নারায়ণগঞ্জের শিক্ষক মমতাজ বেগম কিংবা জাহানারা বেগমের মতো অনেক নারী ভাষা আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত ছিল। মমতাজ বেগম কারাবরণ করেছে। সরকারের সাথে আপোস করেনি বলে তার সংসার ত্যাগ করতে হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের অভিভাবকদের এগিয়ে আসতে হবে। শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে এবং ভবিষ্যত প্রজন্মকে ইতিহাস থেকে শিক্ষা দিতে হবে। তিনি বই পড়ার উপর গুরুত্ব দিয়ে বলেন শিক্ষা অর্জনের বিকল্প কিছু নেই।

বিদ্যানিকেতন পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক সংবাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কাশেম হুমায়ূনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ ইউসুফ আখতার, নারায়নগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আমির হুসাইন স্মিথ, প্রবাসী সাংস্কৃতিক সংগঠক নির্মল পাল, বিদ্যানিকেতন ট্রাষ্টের সিনিয়ন ভাইস চেয়ারম্যান আবদুস সালাম, সদস্য সচিব দেলোয়ার হোসেন চুন্নু ও প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার সাহা।

এর আগে বিদ্যানিকেতনের শিক্ষার্থীরা ভাষার গান, আবৃত্তি ও নৃত্য পরিবেশন করেন। পরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে স্কুলের শিক্ষার্তীদের মধ্যে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

সব খবর
শিক্ষাঙ্গন বিভাগের সর্বশেষ