সোমবার ২০ আগস্ট, ২০১৮

বৈশাখের সাজে সেজেছে নগরীর সবকটি বুটিক হাউজ

শুক্রবার, ৬ এপ্রিল ২০১৮, ২১:০৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: শুরু হয়ে গেছে বাঙালির প্রাণের উৎসব ‘পহেলা বৈশাখে’র প্রস্তুতি। সবাই তৈরি হচ্ছে নানা আয়োজনে নতুন বছরকে বরণ করে নেওয়ার জন্য। পুরনোকে বিদায় জানিয়ে সবাই মেতে উঠবে নতুনের আহ্বানে। আর এই উদযাপন নতুন পোশাক ছাড়া একেবারেই অসম্ভব।

 
পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে সেজে উঠেছে নগরীর প্রধান প্রধান বুটিক হাউজগুলো। এ সকল বুটিক হাউজ গুলো তাদের পোশাকের মধ্যে তুলে ধরতে চেষ্টা করেছে বাংলার সংস্কৃতি ও বৈশাখের নতুনত্ব৷ নগরীর বুটিক হাউজগুলোর মধ্যে বিশ্বরঙ, নকশা, আড়ং ও পটুয়া বুটিক হাউজ চারটি খুবই জনপ্রিয়৷ ক্রেতাদের পছন্দের তালিকায় সবার উপরে থাকে এই চারটি বুটিক হাউজ৷ তাই ক্রেতাদের চাহিদানুযায়ী বুটিক হাউজগুলাও এবার তাদের নতুন সংগ্রহে এনেছে বৈশাখের ছোয়া৷ জেনে নেই, এবারের সংগ্রহে কার কি রয়েছে—
 
 
বিশ্বরঙ
`বিশ্বরঙ` বুটিক হাউজ এবার তাদের কালেকশনে নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী পানাম নগরীর স্থাপনায় ব্যবহৃত বিভিন্ন নকশা ফুটিয়ে তুলেছে। একই সাথে তারা বৈশাখ এবং বাঙালি সংস্কৃতি তুলে ধরেছে। বিশ্বরঙের এবারের সংগ্রহে রয়েছে শাড়ী, পাঞ্জাবী, ফতুয়া, থ্রিপিস, শার্ট, টি-শার্ট ইত্যাদি। `বৈশাখী বিশ্বরঙ` এর পোশাক গুলোতে উৎসবের আমেজ ফুটিয়ে তুলতে উজ্জল রং এর ব্যবহার করা হয়েছে, পাশাপাশি কাজের মাধ্যম হিসাবে এসেছে চুনরি, টাই-ডাই, ব্লক, বাটিক, এপলিক, কাটওয়ার্ক, স্ক্রিন প্রিন্ট ইত্যাদি।
 
 
নকশা
‘নকশা’ বুটিক হাউজ বাহারি রঙের পোশাকে সাজিয়েছে তাদের এবারের বৈশাখী কালেকশন। নকশার স্বত্বাধিকারী এটিএম জামাল জানান, `বৈশাখী কালেকশনে এমন সব পোশাক, ডিজাইন রাখা হয়েছে যা পহেলা বৈশাখ ছাড়াও অন্যান্য দিনেও পড়া যাবে৷ তার পাশাপাশি গ্রীষ্মের প্রখর গরমের কথা ভেবে পোশাক তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে বিভিন্ন রকমের কাপড়। যেমন-  সুতি, তাত, কাতান সিল্ক, সিল্ক, কটন, মসলিন, পিওর কটন। তাদের এবারের কালেকশনে রয়েছে শাড়ী, থ্রি-পিস, ওয়ান-পিস, টু-পিস, পাঞ্জাবি, ফতুয়া, বাচ্চাদের গামছা ফতুয়া, পাঞ্জাবি, ফ্রক ইত্যাদি। এ সকল পোশাকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বিভিন্ন ধরনের ডিজাইন দিয়ে। এছাড়া পোশাকে বিভিন্ন কারুকার্য করা হয়েছে৷ কাজের মধ্যে ছিল হাতের কাজ, ব্লক, এপ্লিক, এমব্রয়ডারি, টাই ডাই ইত্যাদি। বিভিন্ন রঙের সমাহার বলা যায় তাদের এবারের কালেকশন। প্রায় সব রং ব্যবহার করা হয়েছে তাদের এবারের কালেকশনে। নকশা বুটিক হাউজ থেকে জানা যায়, তাদের এবারের কালেকশন পুরোটাই ছাত্রছাত্রীদের কথা ভেবে করা হয়েছে। আর তাই তারা চেষ্টা করেছে এবারের কালেকশন স্বল্প মূল্যের মধ্যে করতে। 
 
 
পটুয়া
`পটুয়া` বুটিক হাউজ তাদের পুরো কালকশনটা বৈশাখী উৎসবটাকে মাথায় রেখে তৈরি করেছে। তাদের পোশাকে তাই বাহারি ফুল, ঢোল, ঘুরি, বাঘ ইত্যাদি লক্ষ করা যায়। তাদের কালেকশনে বেশি ব্যবহৃত হয়েছে লাল-সাদা, সাদা-কমলা, নীল, হলুদ কালার। পটুয়ার পোশাকগুলোও মূলত সুতি কাপড় এর উপর করা হয়েছে। তাদের কালেকশনে রয়েছে পাঞ্জাবী, কামিজ, ফতুয়া, বাচ্চাদের ফ্রক ইত্যাদি। 
 
আড়ং
আড়ং বুটিক হাউজ যেন ষোলো আনাই বাঙালিয়ানায় মেতে উঠেছে। তাদের পুরো কালেকশনেই ছিল বৈশাখের আমেজ। তাদের বুটিক হাউজ ঘুরে দেখা যায়, তাদের বুটিকে সব বয়সের মানুষের জন্য কিছুনা কিছু রয়েছে। শাড়ী, পাঞ্জাবি, ফতুয়া, শার্ট, ফ্রক ইত্যাদি। তার পাশাপাশি ছিল মাটির তৈরি বিভিন্ন বস্তু, বাঁশের বাশি, ঢোল ইত্যাদি। পোশাকের ক্ষেত্রে তারা বেশি প্রধান্য দিয়েছে লাল-সাদা রং এর প্রতি তবে অন্যান্য রঙের ব্যবহারও দেখা যায়।
 
সব খবর