সোমবার ১৭ জুন, ২০১৯

বেতন-বোনাসের দাবিতে শহরে মানববন্ধন

মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ১৮:১৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ২০ রোজার মধ্যে শ্রমিকদের মে মাসের পূর্ণ বেতন ও বেসিকের সমান বোনাস প্রদান দাবিতে জেলা শ্রমিক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার (২১ মে) বেলা ১১ টায় প্রেস ক্লাবে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় রি-রোলিং স্টিল মিলস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম কাদিরসহ নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং পাটকল শ্রমিকদের ৯ দফা বাস্তবায়ন করার ও দাবি জানান তারা।

জেলা শ্রমিক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের সমন্বয়ক হাফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলার সভাপতি আব্দুল হাই শরীফ, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক নাসিরউদ্দিন, সদস্য সচিব এইচ রবিউল চৌধুরী, বিপ্লবী শ্রমিক সংহতির কেন্দ্রীয় নেতা আবু হাসান টিপু, জেলার সভাপতি শহিদুল আলম নান্নু, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলার সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দাস।

এ সময় নেতৃবৃন্দরা বলেন, প্রতি বছর রোজার শুরুতে শ্রমমন্ত্রী বেতন-ভাতা প্রদানের একটি তারিখ দেন। এবছর সেটা দেয়নি। মালিকরা কোনবারই মন্ত্রীর নির্দেশ মানে না। মালিকরা ঈদের ছুটির পুর্ব মূহুর্ত পর্যন্ত শ্রমিকদের বোনাস-বেতন পরিশোধ না করে শ্রমিকদের জিম্মি করে। ঈদের আগ মুহুর্তে শ্রমিকরা যখন স্বজনদের সাথে মিলিত হওয়ার জন্য উদগ্রীব হয় তখন মালিকরা শ্রমিকদের কোথাও অর্ধেক বোনাস দিয়ে, কোথাও বোনাস না দিয়ে বকশিশ হিসাবে কিছু টাকা দিয়ে এবং আংশিক বেতন দিয়ে শ্রমিকদের সাথে প্রতারণা করে। শেষ মূহুর্ত হওয়ায় শ্রমিকদের তাড়াহুড়ো থাকায় শ্রমিকদের তখন প্রতিবাদ করার কোন সুযোগ থাকে না। সরকারও প্রতারক মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না। পুর্ণ বেতন-ভাতা না পাওয়ায় শ্রমিকরা অল্প ভাড়ায় ঝুঁকি নিয়ে গ্রামে যেতে হয়। এতে প্রতি বছর দুর্ঘটনার শিকার হয়ে অনেক শ্রমিক মৃত্যুবরণ করে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকলের শ্রমিকরা পাট শিল্পকে রক্ষা শ্রমিকদের দু-তিন মাসের বকেয়া মজুরি প্রদান, ২০১৫ সালের মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, বরখাস্ত শ্রমিকদের পুনর্বহাল অবসরে যাওয়া শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ, দুর্নীতি বন্ধ করে পাট মৌসুমে পাট ক্রয়ের জন্য পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ করাসহ ৯ দফা দাবিতে আন্দোলন করছে। সরকার দাবি মানছে না। সরকারি পাটকলগুলির শত শত একর সম্পত্তি আত্মসাৎসহ বেসরকারিখাতে ছেড়ে দেয়ার জন্যই এই সরকারি ষড়যন্ত্র চলছে। সে জন্যই একদিকে রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধ হচ্ছে, অন্যদিকে বেসরকারি উদ্যোগে ২৮৫টি পাট কল তৈরী হয়েছে। মৌসুমে ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা মন দরে সময়মতো কৃষকের থেকে পাট না কিনে ২৫০০ থেকে ৩০০০টাকায় ব্যবসায়ী ও ফড়িয়াদের কাছ থেকে পাট কিনে সরকার পরিকল্পিত ভাবে লোকসান ঘটাচ্ছে।

নেতৃবৃন্দরা আরো বলেন, শ্রমিকদের ন্যায়সঙ্গত অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম মালিকরা সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে, নেতাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে দমন করার চেষ্টা করছে। শ্রমিক নেতৃবৃন্দ হামলার শিকার হলে পুলিশ মামলা নিতে গড়িমসি করে আর শ্রমিকরা অধিকার ভোগ করতে চাইলে কোন ঘটনা ছাড়াই শ্রমিক নেতৃবৃন্দের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে। মে দিবসের দিন শ্রমিকরা কারখানায় কাজ না করে মে দিবসের মিছিল করায় মালিকরা রি-রোলিং স্টিল মিলস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম কাদিরসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়েছে। রানাপ্লাজা ধ্বসের ৬ বছর পূর্তিতে ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নের দাবিতে পুলিশ লাইন এলাকায় মিছিল করায় গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের নারায়ণগঞ্জ জেলার সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম শরীফের উপর সন্ত্রাসী হামলা করা হয়েছে।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ