মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বাসদের উদ্যোগে জাহেদুল হক মিলুর স্মরণসভা

শনিবার, ১৩ জুন ২০২০, ২১:৪৭

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট ও চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র এর সাবেক সভাপতি জাহেদুল হক মিলুর ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৩ জুন) বাসদ ও শ্রমিক ফ্রন্টের জেলা শাখার উদ্যোগে বিকাল ৪টায়  বাসদ জেলা কার্যালয়ে এই স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা সমন্বয়ক নিখিল দাসের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় অললাইনে বক্তব্য রাখেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ।

বক্তব্য রাখেন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, বাসদ ফতুল্লা থানার সমন্বয়ক এম এ মিল্টন, রি-রোলিং স্টিল মিলস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম কাদির, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের জেলা সভাপতি সুলতানা আক্তার, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের জেলার সংগঠক প্রদীপ সরকার।

বজলুর রশীদ ফিরোজ বলেন, কমরেড জাহেদুল হক মিলু ছিলেন আজীবন বিপ্লবী। তিনি আমৃত্যু এ দেশের শোষিত নিপীড়িত বঞ্চিত শ্রমজীবী মানুষের মুক্তির সংগ্রামে নিয়োজিত ছিলেন। তিনি গত ১৩ মে ২০১৮ সালে সাংগঠনিক কাজে যাওয়ার সময় সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন। দীর্ঘ এক মাস চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৩ জুন ২০১৮ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের আইসিইউ-তে মৃত্যুবরণ করেন।

তিনি বলেন, কমরেড মিলু স্কুল জীবন থেকেই রাজনৈতিক সংগ্রামে যুক্ত হন। তিনি বিভিন্ন সময়ে সরকারের গণবিরোধী পদক্ষেপের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে ৩ বারে ৪ বছর জেল খাটেন। তিনি ছিলেন প্রচার বিমুখ অন্তর্দৃষ্টি সম্পন্ন। শ্রমজীবী মানুষদের প্রতি ছিল তার গভীর দরদবোধ। পুঁজিবাদী ভোগবাদী সাম্প্রদায়িক অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে ছিলেন সদাই রাজপথে সোচ্চার। চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে একটি অসাম্প্রদায়িক গণসংস্কৃতি নির্মাণের জন্য সংস্কৃতি কর্মীদের সংগঠিত করার চেষ্টা করে গেছেন।
কমরেড ফিরোজ বলেন, বর্তমানে যে এক অগণতান্ত্রিক ফ্যাসীবাদী শাসন চলছে। শ্রমজীবী মানুষের উপর শোষণ নিপীড়ন অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। বিরোধী মতপথকে বন্ধ করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ দমনপীড়ন চলছে। সরকার বাজেট প্রণয়ন করেছে ধনীদের স্বাথের্, শ্রমজীবী মানুষ এখানে উপেক্ষিত। তাই বর্তমান অপশাসনের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলার মধ্য দিয়েই কমরেড মিলুকে সঠিকভাবে স্মরণ করা  হবে।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ