রবিবার ২১ জুলাই, ২০১৯

বাজেটে ধনীদের প্রতি পক্ষপাতিত্ব দেখিয়েছেন অর্থমন্ত্রী: মেনন

শুক্রবার, ১৪ জুন ২০১৯, ২০:৩৬

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ‘সমৃদ্ধির পথ চলায় বৈষম্যের যে সিন্দাবাদের দৈত্য জাতির ঘাড়ে চেপে বসে আছে। তার থেকে পরিত্রাণের কোন উপায় বাজেটে নেই। বরং মধ্যবিত্তকে চাপে রেখে ধনীদের প্রতি পক্ষপতিত্ব দেখিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।’

শুক্রবার (১৪ জুন) বিকেলে চাষাড়ায় জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সভায় গতকাল জাতীয় সংসদে উত্থাপিত বাজেট সম্পর্কে বলতে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘স্মার্ট ফোন আর ফিচার ফোনের মধ্যে শুল্ক কার্যকীকরণ করে তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রেও ডিজিটাল ডিভাইসকে আরও রাঙিয়ে তুললেন তিনি। পোশাক শিল্পের মালিকদের জন্য প্রণোদনা বাড়লেও পোশাক শিল্প শ্রমিকরাই সেই তিমিরেই রইলেন। আর যে কৃষক ধানসহ তার উৎপাদিত ফসলের দাম না পেয়ে জেরবার অবস্থায় তাদের পণ্যমূল্য সহায়তারও কোন ব্যবস্থা নেই বাজেটে। বাংলাদেশের অর্থনীতির সমৃদ্ধির পিছনে যারা মূল শক্তি সেই কৃষক, শ্রমিক, নারী উদ্যোক্তা। অবহেলিতই রইলেন এই বাজেটে।’

বাজেট প্রসঙ্গে রাশেদ মেনন আরও বলেন, ‘এই নারায়গঞ্জে সভাতেই ঋণ খেলাপীদের বিশেষ ছাড় দিয়ে জারি করা বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনের প্রতিবাদ করেছিলাম। হাইকোর্ট সেই প্রজ্ঞাপন আটকে দেয়ায় তা এখনও কার্যকর হয়নি। কিন্তু ঐ ব্যবস্থার ঘোষণার পরিণতিতেই গত এক মাসে ঐ ঋণ খেলাপের পরিমাণ ১৭ হাজার কোটি টাকা বেড়ে এক লক্ষ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। যা বাজেটের পরিমাণের এক পঞ্চমাংশ। অর্থমন্ত্রী ইচ্ছাকৃত খেলাপীদের ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা কথা বলছেন। ব্যাংক খাতের সংস্কারের কথাও বলেছেন। কিন্তু সবই ভবিষ্যতবাচক, বর্তমান এখনও ব্যাংক লুটেরাও খেলাপীদের হাতেই বন্দী।

দেশের অর্থনৈতিক বৈষম্যের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে মেনন খান বলেন, ‘কেবল আয় বৈষম্যই নয়, আঞ্চলিক বৈষম্য, গ্রাম-শহরের বৈষম্য অর্থনীতির ভারসাম্য নষ্ট করছে। বাংলাদেশের সম্পদ এখন কেন্দ্রীয়ভূত মুষ্টিমেয় ধনীর হাতে। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে পাকিস্তানের বাইশ পরিবারের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিল এদেশের মানুষ । এখন এদেশে ‘সুপার ধনী’দের সংখ্যা আরও কম। তারাই ক্ষমতার চার পাশে বলয় তৈরি করে রেখেছে। বঙ্গবন্ধু সে ‘শোষিতের গণতন্ত্র’- এর কথা বলতেন অর্থনীতির বর্তমান উদারবাদী ধারা তাকে কোন পরিণতি দেবে ২০২১ সালের সুবর্ণজয়ন্তীতে এই বাজেট পাঠে তা বুঝতে কারও অসুবিধা হয়না।’

রাশেদ খান মেনন ওয়ার্কার্স পার্টির নেতাকর্মীদের জনজীবনের প্রতিটি ইস্যুতে জনগণকে আন্দোলন ও সংগঠনের ঐক্যবদ্ধ করার আহ্বান জানিয়ে মেনন বলেন, দেশের অর্থনীতি ও দেশকে রাহুমুক্ত করতে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রের সাম্য, মানবিক মর্যাদাবোধ ও সামাজিক সুবিচার নিশ্চিত করার বিষয়টিকে বিশেষভাবে তুলে ধরতে হবে।

জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে সাধারণ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন পার্টির সাধারণ সম্পাদক হিমাংশু সাহা, মুন্সিগঞ্জ জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এড. কনক, মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সুনীল দত্ত, শ্রমিক নেতা এইচ রবিউল চৌধুরী, আবুল বাশার, মুহম্মদ নাসির হোসেন, মাইনুদ্দিন বারী বাহারউদ্দীন, আবুল হোসেন পাঠান প্রমুখ।

সভার শুরুতে ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য শফিউদ্দিন আহম্মদের স্ত্রীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ