বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বন্দরে ৬৮০০ লিটার চোরাই পাম ওয়েলসহ গ্রেপ্তার ১১

বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০১৯, ২২:১৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বন্দরে র‌্যাবের অভিযানে ৬ হাজার ৮শ লিটার চোরাই পাম ওয়েলসহ ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১ এর একটি অভিযান দল।

বুধবার (২৯ মে) রাত ১২টায় বন্দর একলামপুর ইস্পাহানি বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এ সময় তাদের থেকে ৩৪টি ড্রামে ৬ হাজার ৮শ লিটার চোরাই পাম ওয়েল এবং চোরাই কাজে ব্যবহৃত ১২টি খালি ড্রাম, ১টি ইঞ্জিন চালিত তেলের ট্রলার ও ১টি কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হল, মো. রাজিব মিয়া (২৬), মো. মামুন ইসলাম (৩৯), মো. শাহ আলম (৬০), আমির হোসেন রিপন (৩৯), আবুল কালাম মিজি (৫৫), সবুজ (২৪), মো. আলেক (২৯), মো. মোজাম্মেল (১৮), মো. স্বপন (২২), রমজান আলী (৪০) ও খোরশেদ আলম (৩৩)।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) বিকেলে সহকারী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান স্বক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানানো হয়।

র‌্যাব জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল বন্দর থানাধীন একরামপুর ইস্পাহানি বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় ৩৪টি ড্রামে ৬৮০০ লিটার চোরাই পাম ওয়েল উদ্ধার করা হয় এবং চোরাই কাজে ব্যবহৃত ১২টি খালি ড্রাম, ১টি ইঞ্জিন চালিত তেলের ট্রলার ও ১টি কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার করা হয়। এ সময় চোরাই চক্রের সক্রিয় ১১ জন সদস্য গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব আরো জানায়, অভিযান চলাকালে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে উক্ত চোরাই চক্রের মূল হোতা মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাইজের মালিক আব্দুল বারেক মিয়া (৪৫) কৌশলে পালিয়ে যায়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা স্বীকার করে যে, পলাতক আসামী মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাইজের মালিক আব্দুল বারেক মিয়া (৪৫) এর নির্দেশে তারা পরস্পর যোগসাজসে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে পাম ওয়েল সহ অন্যান্য ভোজ্য ও জ্বালানি তেল চোরাইভাবে কেনাবেচা করে আসছে। তাদের এই চোরাই পাম ওয়েল নারায়ণগঞ্জ সহ ঢাকার বিভিন্ন তেল ব্যবসায়ীদের কাছে সরবরাহ করত। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, বন্দর একরামপুর ইস্পাহানি বাজার এলাকার আকিজের ঘাট, কাইস্যার চিপা ঘাটে বেশ কয়েকটি চোরাই পাম ওয়েলের সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এই সিন্ডিকেট আকিজের ঘাট, কাইস্যার চিপা ঘাট এলাকায় চলমান জাহাজ হতে সুকৌশলে দীর্ঘদিন যাবৎ পাম ওয়েল সহ অন্যান্য তেল চুরি করে আসছে। উক্ত চোরাই চক্র এই পাম ওয়েলের সাথে ভেজাল তেল মিশিয়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছে এই তেল সরবরাহ করে থাকে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ