শুক্রবার ১৫ নভেম্বর, ২০১৯

বন্দরে সড়ক দখল করে বল্টু আমজাদের ইট-বালুর ব্যবসা

বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ২১:০৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে বিতর্কিত আমজাদ ওরফে বল্টু আমজাদ ও তার দুই ছেলের বিরুদ্ধে সড়ক দখল করে ইট-বালুর ব্যবসার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী জানান, আমজাদের দুই ছেলে আপন ও হৃদয় নাসিক ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের বক্তারকান্দি গাজী মাইক হতে হারুন সরদারের বাড়ি পর্যন্ত ১২ ফুট চওড়া রাস্তা দখল করে রাস্তার প্রবেশ মুখে সিলেকশন বালু ও ইট রেখে ব্যবসা করা শুরু করেছে। এতে করে ১২ ফুট রাস্তার অর্ধেকের বেশি দখল হয়ে যায়। সিটি কর্পোরেশন বিধি অনুযায়ী বিনা অনুমতিতে নির্মাণ সামগ্রী চলাচলের রাস্তায় রাখা অবৈধ। তার উপর রাস্তা দখল করে ব্যাবসা করে যাচ্ছে প্রকাশ্যে। রাস্তা নির্মাণের পর থেকেই প্রবেশ মুখে বল্টু আমজাদ তার ঠেলা গাড়ি রেখে রাস্তা অর্ধেক বন্ধ করে রাখতো।

এদিকে ভয় আর আতঙ্কে সাধারণ জনগন চলাচলে অসুবিধা হওয়া স্বত্ত্বেও কোনো কথা বলতে পারছে না বলে জানান স্থানীয়রা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি বলেন, এভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে নাসিকের যে উন্নয়ন তা হতে বঞ্চিত হবে কয়েকশ’ পরিবার। তাই তারা রাস্তা হতে বল্টু আমজাদ বাহিনীর ব্যবসা উচ্ছেদ ও তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহন পূর্বক আহ্বান জানিয়ে জনগণকে মুক্ত করার তাগাদা দেন।

জানা যায়, আমজাদ ওরফে বল্টু আমজাদ গত ২৮ জুন রঙ মিস্ত্রি শাহীনের স্ত্রীক উত্যক্ত করার প্রতিবাদ জানালে তাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে আমজাদ ও তার দুই ছেলেসহ বেশ কয়েকজন। এ ঘটনায় ওইদিন বিকেলেই আহত শাহীনের স্ত্রী ববি আক্তার বাদী হয়ে স্থানীয় আমজাদ ওরফে বল্টু আমজাদ (৪৭), আমজাদের ছোট ছেলে আপন (১৮), বড় ছেলে হৃদয় (২৫), শফিক (৩৫), আমজাদের বড় ভাই মনির ওরফে টুন্ডা মনিরকে (৫২) আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে।

এ ঘটনায় আমজাদের ছেলে আপন ও ভাতিজা আকাশকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই মামলায় জামিনে বেরিয়ে আসে তারা। এদিকে গত ২ অক্টোবর ডিবির হাতে ২০০ ইয়াবাসহ গ্রেফতার হয় আমজাদ। নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খন্দকার এন্টারপ্রাইজ হতে তাকে আটক করা হয়।

এদিকে জামিনে বেরিয়ে এসে আবারও এলাকায় নানা অনিয়ম শুরু করেছে আমজাদের ছেলেরা। এমন অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আফজাল হোসেনের মুঠোফোনের নম্বরে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ