সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বন্দরে দেদারসে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ ঔষধ

সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ২১:৫১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বন্দর উপজেলার অধিকাংশ ঔষধের দোকানে চলছে সরকার থেকে নিষিদ্ধ করা ঔষধের রমরমা ব্যবসা। এমন অভিযোগ তুলেছে বন্দরের সচেতন মহল। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানিয়েছেন, বন্দর উপজেলার মদনপুর, ধামগড়, লক্ষনখোলা, সোমবাড়িয়া বাজার, নবীগঞ্জ, বন্দর রেল লাইন, পুরান বন্দর চৌধুরী বাড়ি, সোনাকান্দা, দড়ি সোনাকান্দা, ফরাজিকান্দা, মদনগঞ্জ, আলীনগর, ঘারমোড়া, চুনাভূরা, কলাগাছিয়া, সাবদী ও আদমপুরসহ বন্দও বিভিন্ন এলাকার ঔষধের দোকান গুলোতে দেদারসে বিক্রি হচ্ছে এসব ঔষধ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বন্দরে উল্লেখিত এলাকার ঔষধের দোকানগুলোতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান না থাকায় অসাধু ঔষধ ব্যবসায়ীরা নির্বিঘেœ নিষিদ্ধ ঔষধ অবাধে বিক্রি করে চলছে। এ সব নিষিদ্ধ ঔষধ সেবন করে অনেকে অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে। এ ছাড়াও বন্দরে বিভিন্ন এলাকার অধিকাংশ ঔষধের দোকানের কোন সরকারি লাইন্সেস নেই। প্রতারক ঔষধ ব্যবসায়ীরা মেডিেিনর উপর পড়াশোনা না করেও ঔষধের দোকান গড়ে তুলে সেখানে সরকারি নিষিদ্ধ ঔষধ, নেশা জাতীয় ঔষধসহ মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রি করছে। রোগ থেকে নিরাময় পেতে ভুক্তভোগীরা না জেনে ওই সকল ঔষধের দোকানে ভিড় জমাচ্ছে।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বন্দরের এক বাসিন্দা বলেন, মাদকসেবীরা প্রতিদিন ভিড় করছে বিভিন্ন ঔষধের দোকানগুলোতে। মাদক সেবীদের পাশাপাশি উঠতি বয়সের ছেলে মেয়েরাও মোটা অংকের টাকা দিয়ে ওইসব দোকানগুলো থেকে বিনা প্রেসক্রিপশনে ইউনেকটিন, সিডিল, নকটিন, ওরাডেকসন, ফিসিয়াম, সিডেক্সিন, হিসনাল, ফেনারগন, ডেসপ্রোটিন, ডাইডিলসহ যৌন উত্তেজক ঔষধ ক্রয় করে সেবন করছে।

এ অবস্থা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছে বন্দরবাসী।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ