বুধবার ১৪ নভেম্বর, ২০১৮

বন্দরে দুটি স্কুলে সেলিম ওসমানের ৪০ লাখ টাকার চেক প্রদান

মঙ্গলবার, ৬ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:৩০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বন্দরের কলাগাছিয়া ইউনিয়ন এলাকায় কলাগাছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন উন্নয়নে ২ কোটি টাকার অনুদানের ঘোষণা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। যার মধ্যে স্কুলের সীমানা দেয়াল নির্মাণের জন্য স্কুল পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দের হাতে ২৫ লাখ টাকার চেক তুলে দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও একই ইউনিয়ন এলাকার হাজী আলমচাঁন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকবৃন্দের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে বিশুদ্ধ খাবার পানি সমস্যা সমাধানে একটি ডিপ-টিউবওয়েল স্থাপন কাজের উদ্বোধন এবং শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বসার কক্ষ আধুনিকায়নের জন্য ১৫ লাখ টাকার চেক প্রদান করেছেন। এমপি সেলিম ওসমানের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এসব উন্নয়ন কাজের জন্য অনুদান প্রদান করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) সকাল ১১টায় বন্দরের হাজী আলমচাঁন উচ্চ বিদ্যালয় এবং দুপুর সাড়ে ১২টায় কলাগাছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দের হাতে চেক দুটি তুলে দেন এমপি সেলিম ওসমান।

চেক হস্তান্তরের পূর্বে কলাগাছিয়া ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের চারপাশে সীমানা দেয়াল নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। পরে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি সেলিম রেজার সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় এমপি সেলিম ওসমান প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমরা সবাই মন দিয়ে লেখাপড়া করে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হবে এটা আমার একমাত্র চাওয়া। সবাইকেই জিপিএ-৫ পেতে হবে এমন চাওয়া ঠিক না। আর জিপিএ-৫ পাওয়াটাই বড় কথা নয়। যতটুকুই পড়বে সেটা মনযোগ সহকারে পড়বে। মুখস্থ বিদ্যায় শিক্ষিত হলে জ্ঞানার্জন করা সম্ভব না। যা পড়বে সেটা তোমার মস্তিস্কে ধারণ করতে হবে। রাতে বিছানায় শুয়ে কেউ ফেসবুক চালাবে না। পরীক্ষার সময় তোমরা রাতে কমপক্ষে ৬ ঘন্টা ঘুমাবে। আর অন্য সময় রাতে কমপক্ষে ৮ঘন্টা ঘুমাবে তাহলে দেখবে পড়ালেখা কত সহজ হয়ে যায়। পরীক্ষার হলে গিয়ে অনর্গল লিখে আসতে পারবে।

এছাড়াও তিনি শিক্ষার্থীদের স্কুলের ভেতরে বিভিন্ন প্রকার ফুল গাছের চারা রোপন এবং স্কুল ভবনের ছাদে বিভিন্ন ধরনের কৃষির চাষ করার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি নিজেদের বাড়িতেই এই চর্চা চালিয়ে যাওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

এদিকে কলাগাছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে ঘাড়মোড়া এলাকায় খেলাধূলার জন্য স্টেডিয়াম নির্মাণ করার জন্য এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে হাজী আব্দুল আলী-জহর আলী স্টেডিয়াম নামে একটি খেলার মাঠ পরিদর্শন করেন এমপি সেলিম ওসমান। গাড়ি থেকে নেমে মাঠ পরিদর্শনে গেলে উক্ত এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে তাঁকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

এ সময় এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে স্টেডিয়াম, প্রতিটি ইউনিয়ন এলাকায় একটি করে মসজিদ এবং একটি মাদ্রাসা নির্মাণের প্রকল্প হাতে নিয়েছে। গত ৪বছর ধরে বন্দরে স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য জায়গা খুঁজে যাচ্ছি। কিন্তু জায়গা পাওয়া যাচ্ছে না। সরকারী প্রকল্প অনুযায়ী স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য কমপেক্ষ ৩ একর জায়গা প্রয়োজন। কিন্তু মাঠটি পরিমান ১ একর। আপনাদের এলাকাবাসীর উপর দায়িত্ব দিয়ে গেলাম আপনার সকলে একত্রে বসে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেন এখানে আপনারা কি উন্নয়ন চান। জমির পরিমান বৃদ্ধি করে একটি স্টেডিয়াম নাকি মসজিদ, মাদ্রাসা বা অন্য কোন কিছু। আপনারা সিদ্ধান্ত নিয়ে আমাকে জানাবেন। অবশ্যই উন্নয়ন করা হবে। বর্তমান সরকার উন্নয়নে বিশ্বাসী। আর এই উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে আবারো শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার প্রয়োজন। আমি এমপি থাকি বা না থাকি মৃত্যু আগ মুহুর্ত পর্যন্ত আপনাদের পাশে থেকে এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাবো।

কলাগাছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক আবুল জাহের, মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক সানাউল্লাহ সানু, বন্দর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পিন্টু বেপারী, সহকারী ভূমি কর্মকর্তা রুমানা আক্তার, মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজিম উদ্দিন প্রধান, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি বাচ্চু মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর হোসেন, মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, কলাগাছিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান, বন্দর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও গন্যমান্য ব্যক্তিরা।

সব খবর
শিক্ষাঙ্গন বিভাগের সর্বশেষ