বুধবার ২০ নভেম্বর, ২০১৯

বন্দরে ওড়নায় মুখ বেঁধে গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার দুই

মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:১০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বন্দরে গার্মেন্টস হতে ফেরার পথে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিশোরী গার্মেন্টস কর্মী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় বন্দরের কুড়িপাড়া খালপার এলাকায় পরিত্যক্ত একটি ঘরে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে থানা পুলিশ অভিযুক্ত দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে বন্দর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- কুড়িপাড়া এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে ছগির (২২) ও একই এলাকার মৃত আকবর আলীর ছেলে আরমান (২০)।

মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন, সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বন্দরের কুড়িপাড়া খালপাড় রাস্তার পার্শ্বে জনৈক রনির পরিত্যক্ত ঘরের কাছে পৌছালে উল্লিখিত বিবাদীদ্বয় আমার মেয়েকে পিছন থেকে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ঘরের ভিতরে ঢুকায় এবং আমার মেয়েকে তাহার পড়নের ওড়না দিয়া মুখ বেঁধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। উল্লেখিত বিবাদীদ্বয় কর্তৃক একাধিকবার ধর্ষণের ফলে আমার মেয়ে মানসিক ও শারিরীকভাবে অসুস্থ হয়ে পরে।

মামলার বাদী বলেন, পরবর্তীতে অসুস্থ অবস্থায় বাসায় এসে কান্নাকাটি করলে সে বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে আমাকে ঘটনার বিস্তারিত জানায়। আমি আমার মেয়ের নিকট হতে ঘটনার বিস্তারিত শুনে বিচারের দাবিতে স্থানীয় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুলকে জানাই। তিনি ঘটনার বিস্তারিত শুনে পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ কাউন্সিলরের বাড়িতে উপস্থিত হয় এবং পুলিশ আমাদের নিকট হতে ঘটনার বিস্তারিত শুনে অভিযান পরিচালনা করে উল্লেখিত আসামীদ্বয়কে গ্রেফতার করেন।

এ বিষয়ে বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর রাতেই অভিযুক্ত দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ