রবিবার ২৯ মার্চ, ২০২০

ফেসবুকে বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ‘ব্যঙ্গচিত্র’ শেয়ার, যুবক আটক

মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:১২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ‘ব্যঙ্গচিত্র’ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শেয়ার করার অভিযোগে এক তরুণকে আটক করেছে পুলিশে। বাবার তথ্যের ভিত্তিতে ছেলেকে আটক করা হয়। এর আগে ওই তরুণের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে মামলা দায়ের করা হয়। আটক ওই যুবক নারায়ণগঞ্জের বন্দরের একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের ছেলে।

আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানা এসআই আনোয়ার হোসেন। তিনি জানান, বন্দরের বাগবাড়ি থেকে অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।  

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গালিব হাসনাত নামে এক তরুণ সম্প্রতি ফেসবুকে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর দুটি ছবি শেয়ার করেছেন। গালিব বন্দরের হাজী সিরাজউদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেলাল উদ্দিনের ছেলে। গালিবের শেয়ার করা ছবি দুটিকে ব্যাঙ্গাত্মক উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছেন বন্দরের ২৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও হাজী সিরাজউদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জাকির হোসেন। মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে বন্দর থানায় তথ্য ও প্রযুক্তি আইনে মামলাটি দায়ের করেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ছবি দুটি নিয়ে বন্দরের কদম রসূল এলাকায় বেশ উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। গত দুই দিন অভিযুক্ত গালিবের পিতার কর্মরত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে বিক্ষোভ করার খবরও পাওয়া গেছে। এদিকে নিরাপত্তার অভাবে এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন গালিবের পরিবার।

হাজী সিরাজউদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হুমায়ূন কবির মৃধা বলেন, বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। ঘটনার সাথে অভিযুক্তের পিতার কোন সম্পৃক্ততা আছে কিনা সে বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাকে প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তাদের পুরো পরিবার এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন বলে শুনেছি।

এ বিষয়ে আলাপ করতে চাইলে হাজী সিরাজউদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অভিযুক্ত গালিবের পিতা হেলাল উদ্দিনের মুঠোফোনের নম্বরে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, ওই ঘটনায় থানায় মামলা করেছেন স্কুল কমিটির সদস্য ও যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন। অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। তবে অভিযুক্তের পরিবার এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন কিনা সে বিষয়ে আমার জানা নেই। পরিবারের নিরাপত্তার বিষয়টি পুলিশ দেখবে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ