শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯

ফের আলোচনায় নিয়াজুলের অস্ত্র

মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:২৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: গত বছরের ১৬ জানুয়ারি হকার ইস্যুকে কেন্দ্র করে মেয়র আইভী ও সাংসদ শামীম ওসমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রকাশ্যে অস্ত্র (পিস্তল) প্রদর্শন করে আলোচনায় আসেন শামীম ওসমানের অনুসারী নিয়াজুল ইসলাম। ঘটনার পর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের সাধু পৌলের গীর্জার সামনে পরিত্যক্ত অবস্থায় অস্ত্রটি উদ্ধার করে হেফাজতে নেয় সদর মডেল থানা পুলিশ। সম্প্রতি নিয়াজুল ইসলাম ওই অস্ত্রের লাইসেন্স নবায়নের জন্য জেলা ম্যাচিস্ট্রেটের কার্যালয়ে আবেদনপত্র জমা দিয়েছেন। এ নিয়ে ফের আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

নিয়াজুলের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসন পিস্তলটির লাইসেন্স নবায়নের বিষয়ে আইনি মতামত জানতে চেয়ে পুলিশের বিশেষ শাখায় চিঠি দিয়েছে। গত ২২ জানুয়ারি জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাব্বী মিয়া স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, শহরের ৭১ নম্বর উত্তর চাষাড়া এলাকার নিয়াজুল ইসলামের নামে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের আগ্নেয়াস্ত্র শাখা থেকে ইস্যু করা পিস্তলটির লাইসেন্স ২০১৮ সাল পর্যন্ত নবায়ন করা। লাইসেন্সটি ২০১৯ সালের জন্য নবায়ন করতে আবেদন করেছেন নিয়াজুল।

লাইসেন্স নবায়নের বিষয়ে তদন্ত চলছে জানিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম হোসেন বলেন, নিয়াজুলের অস্ত্রের লাইসেন্স নবায়নের আবেদনের চিঠি এসেছে। তদন্তের জন্য কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

এদিকে নিয়াজুলের হারিয়ে যাওয়া ওই অস্ত্রটি সদর মডেল থানায় পুলিশী হেফাজতে আছে বলে জানিয়েছেন সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৬ জানুয়ারি হকার ইস্যুকে কেন্দ্র করে মেয়র আইভী ও সাংসদ শামীম ওসমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় শামীম ওসমান অনুসারী নিয়াজুল নিজের পিস্তল প্রদর্শন করে তেড়ে আসলে মেয়রের সমর্থকদের গণপিটুনির শিকার হন। এ সময় অস্ত্রটি হারিয়ে যায়। পরে ২৫ জানুয়ারি দিবাগত রাত ২টার দিকে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের সাধু পৌলের গীর্জার সামনে পরিত্যক্ত অবস্থায় অস্ত্রটি উদ্ধার করে হেফাজতে নেয় সদর মডেল থানা পুলিশ।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ