মঙ্গলবার ২০ আগস্ট, ২০১৯

ফাঁকা মাঠ পাচ্ছেন না এমএ রশীদ

সোমবার, ২০ মে ২০১৯, ২৩:৪১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বন্দর উপ‌জেলা প‌রিষদ নির্বাচন ঘি‌রে নাটক শেষ হ‌য়েও হচ্ছে না। বন্দর উপজেলা পরিষদের দুই বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুল নির্বাচন না করার সিদ্ধান্ত জানালে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এমএ রশীদের পথ অনেকটা সুগম হয়েছিল৷ এম এ রশীদ বিনা বাধায় চেয়ারম্যান হ‌চ্ছেন এমন খবর সর্বত্র ছ‌ড়ি‌য়ে প‌ড়ে। কিন্তু পাল্টে যাচ্ছে সমীকরণ৷ ফাঁকা মাঠ পাচ্ছেন না তিনি৷ আওয়ামী লীগের একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের এক নেতা এমএ রশীদের বিপরীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে যাচ্ছেন৷

পরপর দুইবার বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুলের কাছে পরাজিত হলেও অনেকটা নাটকীয়ভাবে বন্দর উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশীদ৷ নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন লড়াইয়ে তার শক্ত প্রতিদ্বন্দী ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আবু সুফিয়ান৷ উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লী‌গের টি‌কেট পে‌তে এক প্রকার ম‌রিয়া ছি‌লেন সু‌ফিয়ান। যি‌নি মেয়র ডা: সে‌লিনা হায়াৎ আইভীর ঘ‌নিষ্ঠজন হি‌সে‌বে প‌রি‌চিত। সংসদ নির্বাচনে দলীয় ম‌নোনয়ন না পে‌য়ে সু‌ফিয়ান ঝুঁ‌কেন বন্দর উপ‌জেলা প‌রিষদ নির্বাচ‌নে। এ ল‌ক্ষ্যে তি‌নি উপ‌জেলার সর্বত্র সভা সমা‌বেশ ক‌রে নি‌জের প্রা‌র্থিতার জানান দেন। ত‌বে শেষ পর্যন্ত তি‌নি দলীয় সমর্থন আদা‌য়ে ব্যর্থ হন। বন্দরের তৃণমূল পর্যায়ে সুফিয়ানের অবস্থান ছিল বেশ শক্ত৷ তবে শেষ পর্যন্ত বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ রশীদ মনোনয়ন পেলে নৌকা প্রার্থীর পক্ষেই কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন আবু সুফিয়ান৷

সবকিছু রশীদের অনুকূলে থাকলেও হঠাৎ সব সমীকরণ পাল্টে যাচ্ছে স্বতন্ত্র পদে আওয়ামী লীগ নেতার নির্বাচন করার সিদ্ধান্তে৷ তবে কে এই আওয়ামী লীগ নেতা এবং শেষ পর্যন্ত তিনি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন কিনা তা জানতে মনোনয়ন জমা দেয়ার শেষ দিন মঙ্গলবার (২১ মে) পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে৷ 

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ