মঙ্গলবার ৩১ মার্চ, ২০২০

ফতুল্লায় সৎ মায়ের বিরুদ্ধে প্রবাসীর মারধরের অভিযোগ

সোমবার, ১৬ মার্চ ২০২০, ২১:০৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: পৈত্রিকসূত্রে পাওয়া সম্পত্তি দাবি করায় এক প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে সৎ মায়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সোমবার (১৬ মার্চ) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার বক্তাবলীর গঙ্গানগর এলাকার আহত শহিদুল্লার স্ত্রী বাছিরুন বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ করেছেন।

শহিদুল্লার অভিযোগ, পৈত্রিক সম্পত্তি দাবি করায় রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সৎ মা আমেনা বেগম ও তার ভাড়াটে লোকজন তাকে মারধর করে গুরুতর জখম করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বক্তাবলীর কানাইনগর এলাকার বাসেদ মিয়ার ছেলে শহিদুল্লাহ চাকরি করার উদ্দেশে দুবাই যায়। সেখান থেকে ঘর নির্মাণসহ জমি ক্রয়ের জন্য সৎ মা আমেনা বেগমের নিটক ৮ লাখ টাকা পাঠায়। ৮ বছর দুবাই থেকে দেশে ফিরে আসে বিয়ে করে। আর দেশে বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা ও পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ওয়ারিশের সম্পত্তি অংশ বুঝিয়ে না দিয়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছিল। এক পর্যায়ে শহিদুল্লাহকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি হুমকি দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এর পর শহিদুল্লাহ স্ত্রীকে নিয়ে কানাইনগরে বসবাস করতে থাকে। পরবর্তীতে পিতার সম্পত্তির ওয়ারিশ ও বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বললেও কর্ণপাত না করে হুমকি দিয়ে আসছিল। আর শহিদুল্লাহর সৎ মা আমেলা বেগমের ইন্ধনে গঙ্গানগরের আলিম উদ্দিন, জাকির হোসেন ও সৎ ভাই রাজু, আসাদুল্লাহসহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন মিলে রোববার রাতে শহিদুল্লাহকে খবর দিয়ে গঙ্গানগর নিয়ে মারধর করে। এ সময় শহিদুল্লাহর হাতের নখ তুলে ফেলে এবং চোখ তুলে ফেলারও চেষ্টা করে। পরে শহিদুল্লাহর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে তার স্ত্রীকে খবর দিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জানান, শহিদুল্লাহকে মারধর করার ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ