সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ফতুল্লায় ধর্ষণের শিকার শিশু হাসপাতালে কাতরাচ্ছে

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৫:৫২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লায় পাঁচ বছর বয়সী এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়ে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত সোহেল (২৬) পলাতক রয়েছে।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) সন্ধ্যায় ফতুল্লা পাগলা রেল স্টেশন বৈরাগী বাড়ি এলাকায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত সোহেল ফতুল্লার পাগলা বৈরাগী বাড়ি এলাকার আলমগীরের বাড়ির ভাড়াটিয়া আবুল শরীফের ছেলে। ঘটনার পর তার ঘর থেকেই নির্যাতনের শিকার শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভুক্তভোগীর পরিবারের বরাত দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরিফুর রহমান জানান, শিশুটির বাবা সিএনজি চালক আর মা গৃহিনী। সোহেল তাদের পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া। দীর্ঘদিন পাশাপাশি থাকায় সোহেল শিশুটিকে ভাতিজী বলে ডাকতেন এবং তার ঘরে ডেকে নিয়ে শরীর টিপাতো। শুক্রবার বাদ মাগরিব শিশুটিকে সোহেল তার ঘরে ডেকে নেয়। এরপর কৌশলে শরীর টিপার কথা বলে ধর্ষণ করে। এতে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে সোহেল পালিয়ে যায়। এ সময় শিশুটির মা সোহেলের ঘরে গিয়ে শিশুটিকে নিথর হয়ে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করে। এরপর আশপাশের লোকজন ছুটে এসে শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, ঘটনা সন্ধ্যায় ঘটলেও আমাদের জানানো হয় রাত ২টায়। এর মাঝে দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতার চেষ্টাও হয়। সমঝোতার আলোচনার এক পর্যায়ে সোহেল পালিয়ে যায়। তবে তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। শিশুটি বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম হোসেন বলেন, ‘ভুক্তভোগীর অবস্থা গুরুতর। সে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এখনো মামলা হয়নি তবে প্রক্রিয়াধীন। অপরাধীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ