মঙ্গলবার ১৮ জুন, ২০১৯

ফতুল্লায় দুইশ' শ্রমিকের ঈদ উৎসব অনিশ্চিত

মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০১৯, ১১:২৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

বামে শ্রমিকরা, ডানে কারখানার মালিক আমির

বামে শ্রমিকরা, ডানে কারখানার মালিক আমির

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লায় একটি রপ্তানিমুখী পোশাক কারখানায় দুইশ’ শ্রমিকের দুই মাসের বেতন ও ঈদ বোনাস না দিয়ে পালিয়েছেন মালিক। ফতুল্লার তক্কার মাঠ এলাকায় অবস্থিত এবি নিট এ্যাপারেলস নামে কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার (৩ জুন) সকালে শ্রমিকরা কারখানায় এসে গেইটে তালা ঝুলতে দেখে হতাশ হয়ে পড়েন। এরপর কারখানার মালিক আমির হোসেনসহ মালিক পক্ষের লোকজনদের মোবাইলে ফোন করে তা বন্ধ পাওয়া যায়। এতে হতাশ শ্রমিকরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

কারখানার ঝাড়ুদার মর্জিনা বেগম জানান, ৫ হাজার টাকা বেতনে কাজ করে অসুস্থ্য স্বামী ও ৬ শিশু সন্তানের সংসার চালাই। দুই মাস যাবৎ মালিক বেতন দেয় না। তারপরও আশায় ছিলাম ঈদের আগে দুই মাসের বেতন ও বোনাস পাবো। এ টাকা দিয়ে সন্তানদের নতুন জামা-কাপড় কিনে দেবো। অনেক আশা আর সপ্ন নিয়ে সকালে কারখানায় আসি। কিন্তু সপ্ন এখন হতাশায় পরিণত হলো। কান্না ছাড়া এখন কিছুই করার নাই। বাড়ি গিয়ে সন্তানদের কি বলবো! ভিক্ষা করে এতোদিন দুমুঠো খাবার জুটিয়েছি।

অদূর ভবিষ্যতের কথা ভেবে কান্না করছিলেন নারী শ্রমিক রুবি বেগম। কান্না থামিয়ে তিনি বলেন, মাসে ৬ হাজার টাকা বেতনে কাজ করি। দুই মাসের দোকান বাকি আর ঘর ভাড়া জমেছে। এখন কি করবো তাই কান্না করছি।

কারখানার ভবনের মালিক ইউসুফ মিয়া জানান, আমির হোসেন নামে ব্যবসার জন্য মাসে ৯৫ হাজার টাকায় ভাড়া নিয়েছে আমার তিন তলা ভবন। ৪ মাস যাবৎ ভাড়া দেই দিচ্ছি বলে ঘুরাচ্ছে। কালকেও বলছে শীপমেন্ট দিয়ে আজ ভাড়া পরিশোধ করবে। এখন শুনলাম সে নাকি পালিয়েছে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া শিল্প পুলিশের পরিদর্শক মাসুদ জানান, শ্রমিকরা খুবই শান্ত অবস্থায় মালিক বেতন নিয়ে আসবে বলে কারখানার সামনে মাটিতে বসে আছে। আমি নানা ভাবে চেষ্টা করেছি মালিকের সন্ধানের জন্য। কিন্তু কোথাও মালিকের সন্ধান পাইনি। অসহায় শ্রমিকদের দেখে কষ্ট হচ্ছে।

এদিকে কারখানার মালিক আমির হোসেনের দুটি মোবাইল নম্বরে ফোন দিয়ে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ