শুক্রবার ২৪ মে, ২০১৯

‘প্রেমহীন জীবন আমি মানি না’

বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৪:৪০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ ডটকম: অভিনেত্রী সোহানা সাবা বললেন, আমি নিজেকে শতভাগ প্রেমিক নারী বলে মনে করি। তাহলে তার মুখ থেকেই শোনা যান বিশেষ দিনে ভালোবাসার সেই গল্প।

আমি জানি না আমাদের সমাজ ব্যবস্থা বা মানসিকতা এমন কেন, এখানে প্রেম নিয়ে কোনও কথা বলা যেন পাপ! প্রকাশ্যে ইভ টিজিং করলে সেটার প্রতিবাদ করতে কেউ এগোবে না কিন্তু প্রকাশ্যে প্রেম করলে সবাই ঠিকই তেড়ে আসে। এদেশের এ এক অদ্ভুত রীতি। আপনি কাকে ভালোবাসবেন বা কার সঙ্গে জীবনযাপন করবেন সেটা ফ্যামিলি ঠিক করে দেয়। আপনি নিজে সেটা ঠিক করলে সবার চোখে আপনি বেয়াদব! আশার কথা হলো- এই রীতি ধীরে ধীরে বদলাচ্ছে।

বলছিলাম আমার প্রেম-জীবনের কথা। অদ্ভুতভাবে আমি খুব ছোট থেকেই অসংখ্যবার প্রেমে পড়েছি; যেগুলোর আয়ুষ্কাল ছিলো বড়জোর ৭দিন! যার সবগুলোই ছিল একতরফা। আর প্রেমগুলো একদম ‘আমি তো প্রেমে পড়িনি/ প্রেম আমার ওপরে পড়েছে’ টাইপ!

যাই হোক, স্কুলের শেষের দিকে রনির (ছদ্মনাম) সঙ্গে প্রেম হয় আমার। বয়সে আমার থেকে সে মিনিমাম ১০ বছরের বড় ছিলো! এটা একতরফা না, সেও আমার প্রেমে হুড়মুড় করে পড়লো। প্রথম ডেট করার দিন বাসায় ধরা খেলাম। কারণ আমি লুকিয়ে কিছু করতে শিখিনি। তাই প্রথম লুকানো ডেটিংয়েই একেবারে কট-বিহাইন্ড! এরপর কোনোভাবে এক বছর গেল। তারপর ব্রেকআপ।

সেই কষ্ট কাটাতে প্রেম শুরু হলো মিডিয়ার এক পরিচিত মুখ অভিষেকের (ছদ্মনাম) সঙ্গে। আবার ফ্যামিলি থেকে বাধা। দেড় বছর পর সেটাও ব্রেকআপ! এরপর মুরাদের (নির্মাতা মুরাদ পারভেজ) সঙ্গে পরিচয়। টানা নয় মাস আমাকে জ্বালাতন করার পর মনে হলো- বেচারা দেবদাস, হ্যাঁ বলে দিই। এই ‘হ্যাঁ’ বলার তিন মাসের মধ্যেই বিয়ে করার প্রস্তাব! আমিও তালে তালে বিয়ে করে ফেললাম।
জীবনের এত বড় একটা সিদ্ধান্ত নিলাম হাসতে-খেলতে, এখন ভাবলেও হাসি পায়।

সব খবর
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ