বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

প্রি-পেইড মিটার লাগাতে বাধা দেওয়ায় মামলা

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ২০:৫৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: জেলাজুড়ে পল্লী বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটারের বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে। নানা অভিযোগ উল্লেখ করে এই মিটার অপসারণের দাবি তুলছেন গ্রাহকরা। এদিকে সোনারগাঁয়ে সনমান্দি এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটার লাগাতে বাধা দেওয়ায় গ্রাহকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের ঘটনা ঘটেছে।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছেন, গত সোমবার সকালে বিদ্যুৎ অফিস কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী লাইনম্যান মো. রাহমাতুল্লাহ, মো. আজগর আলীসহ ১২ কর্মী মিটার প্র্রতিস্থাপনের জন্য ২০০ প্রি-পেইড মিটার নিয়ে উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের চরলাল গ্রামে যাওয়ার পথে বাংলাবাজার গিয়ে তাদের ব্যবহৃত গাড়ি থেকে বৈদ্যুতিক মিটার নামানোর পর স্থানীয় লোকজন ওই এলাকায় প্রি-পেইড মিটার সংযোগ দিতে বাধা প্রয়োগ করেন। এক পর্যায়ে লাইনম্যানসহ তাদের সবাইকে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে আহত ও প্রায় ৫ লাখ টাকার প্রি-পেইড মিটার ও অন্যান্য বৈদ্যুতিক যন্ত্রাংশ ভাঙচুর করে।

এ ঘটনায় ১১ জনের নাম উল্লেখ করে ও আরো ১৫/২০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সরকারি জেনারেল ম্যানেজার সুজন কুমার সরকার বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে মামলার আসামিরা অভিযোগ করেন, গতকাল জনৈক শাখাওয়াতের দোকানে পল্লী বিদ্যুতের লোকজন প্রি-পেইড মিটার লাগাতে যায়। এ সময় শাখাওয়াত বাঁধা দেয়ায় তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয় এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এর জের ধরে সোমবার বিকালে সোনারগাঁ পল্লী বিদ্যুতের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হয়। সে মামলায় শাখাওয়াতকে গতকাল রাতে পুলিশ গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে সোনারগাঁ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মীদের মারধর ও যন্ত্রপাতি নষ্ট করার অভিযোগে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় একজন গ্রেফতার আছে।’

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ