বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর, ২০১৯

প্রি-পেইড মিটার অপসারণের দাবিতে এবার ঝাড়ু নিয়ে বিক্ষোভ

রবিবার, ৭ জুলাই ২০১৯, ১৭:৪৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রি-পেইড মিটারের বিরুদ্ধে এবার ঝাড়ু নিয়ে বিক্ষোভ
প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটার গ্রাহকদের গলার কাঁটা হয়ে দাড়িয়েছে। নানা অভিযোগে প্রি-পেইড মিটার অপসারণের দাবিতে বেশ কয়েকদিন যাবৎ জেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধ থেকে শুরু করে পল্লী বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাও করছেন গ্রাহকরা। এবার সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকায় প্রি-পেইড মিটারের বিরুদ্ধে ঝাড়ু নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন স্থানীয় গ্রাহকরা।

রোববার (৭ জুলাই) সকালে জালকুড়ি এলাকায় প্রি-পেইড মিটার না লাগানোর দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন বিক্ষুব্দ গ্রাহকরা। বিক্ষোভে সমর্থন জানিয়ে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দও অংশগ্রহণ করেন। বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন প্রি-পেইড মিটার লাগাতে আসলে ঝাড়ু পেটা করারও হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, আমরা প্রি-পেইড মিটার চাইনা। সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডের বিপক্ষে আমরা নই। তবে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় কোন দুর্নীতি চলতে দেয়া হবে না। সাধারণ জনগণের উপর জোরপূর্বক টেকনিক্যাল কোন বিষয় চাপিয়ে দেয়া ঠিক হবে না। অবৈধভাবে মানুষের উপর চাপিয়ে দেওয়ার যে অপতৎপরতা চালানো হচ্ছে, প্রয়োজনে তা আন্দোলন-সংগ্রামের মাধ্যমে প্রতিহত করা হবে।

তারা আরো বলেন, ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে জেনেছি, প্রি-পেইড মিটারে আগের মিটারের বেশি বিল নেয়া হচ্ছে। কারো আগের বিল যদি ১ হাজার ১০০ টাকা হতো এখন প্রি-পেইড মিটারে বিল আসছে ২ হাজার ৫০০ টাকা। এ ছাড়া মিটার ভাড়া আগের চেয়ে চার গুণ, প্রি-পেইড মিটারে বিদ্যুৎ ব্যয় ডিজিটাল মিটারের দ্বিগুণ, পর্যাপ্ত ভেন্ডিং বা রিচার্জ স্টেশন নেই, দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে কার্ড কিনতে হয়, একাধিকবার কার্ড ক্রয়ের ঝামেলা, ইমার্জেন্সি ব্যালেন্সের জন্য অতিরিক্ত টাকা কেটে নেয়া হচ্ছে, প্রিপেইড মিটার বিলের সঙ্গে আগে স্থাপিত সেন্ট্রাল মিটারেরও চার্জ কাটা যায়, প্রতি রিচার্জেই একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা কেটে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। আমরা এসব ভোগান্তি পোহাতে চাই না। আমাদের ডিজিটাল মিটারই ঠিক আছে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ