বৃহস্পতিবার ২৮ মে, ২০২০

প্রশাসনের কঠোর অবস্থানে জনশূন্য নারায়ণগঞ্জ

সোমবার, ৬ এপ্রিল ২০২০, ১৭:১৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের লক্ষে মাঠে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন। সংক্রমণ ঠেকাতে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের জিরো টলারেন্সে জনশূন্য পুরো নগরী। মূল সড়ক কিংবা গলিতেও লোক চলাচল সীমিত হয়ে গেছে। প্রয়োজনীয় কাজ ছাড়া বের হচ্ছেন না কেউ।

গতকাল ৫ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ সকাল থেকে জিরো টলারেন্স ভূমিকায় থাকছে প্রশাসন। বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে কাউকে বের হতে দেয়া হবে না। বের হলেই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ও জনসমাগম রোধে সোমবার (৬ এপ্রিল) সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন এলাকায় জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট, সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যদের উপস্থিতি দেখা গেছে। নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট স্থাপন করা হয়েছে এবং যান চলাচলে বাধা দেয়া হচ্ছে। পাশপাশি রাস্তায় অযথা ঘুরাফেরায় সকলকে জবাবদিহি করা হচ্ছে। ব্যক্তি পর্যায়ে যানবাহন ও মানুষ চলাচল রোধে প্রায় সব পাড়া মহল্লার সড়কগুলোতে ব্যারিকেড তৈরি করেছে স্থানীয়রা। ফলে মানুষের চলাচল কমে যায় এবং অনেকটাই ফাঁকা হয়ে গেছে নারায়ণগঞ্জ শহর।

এদিকে ফতুল্লা বিসিক শিল্পনগরী ও সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডে শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করতে বেশ কয়েকটি করাখানা খোলা রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজন করোনা রোগী শনাক্ত হন। সেই সময়ে আক্রান্ত দুইজনই ছিলেন নারায়ণগঞ্জের। একে একে এই সংখ্যা বাড়তে থাকে। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২৩ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৪ জন। গণামাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, আরও কয়েকজন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন যাদের নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। গত তিনদিনেই প্রায় অর্ধশতাধিক নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। চব্বিশ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১২ জন। করোনায় নারায়ণগঞ্জের পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছে বলে অভিমত অনেকের। নারায়ণগঞ্জের এই পরিস্থিতিতে জেলাটিকে ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচিত করেছে আইইডিসিআর।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ