সোমবার ১৯ আগস্ট, ২০১৯

নাসিকের বাজেট প্রতিক্রিয়া

রবিবার, ১৪ জুলাই ২০১৯, ২১:১৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৮৭০ কোটি ৩৯ লক্ষ ৭৭ হাজার ৭৬ টাকার বিশাল বাজেট ঘোষণা করেছেন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। যেখানে রাস্তা ড্রেনের উন্নয়ন ও স্বাস্থ্য সেবার উন্নতিকরণ, মাঠ ও জলাধার সংরক্ষণকেও গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে দারিদ্র্য বিমোচন, তথ্য প্রযুক্তি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যানজট নিরসন, জলাবদ্ধতা দূরীকরণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিয়কায়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও জরুরীত্রান, খেলাধুলার মানোন্নয়ন ও সড়ক বাতি স্থাপনের মত গুরুত্বপূর্ণ খাতে।

বাজেটের প্রতিক্রিয়ায় বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের মহানগর শাখার সভাপতি মুকসুদুর রহমান জাবেদ বলেন, বাজেটকে সাধুবাদ এবং বাজেট যুগোপযোগী বলেই মনে করি। এই বাজেটের মাধ্যমে উন্নয়নের ধারা অপ্রতিরোধ্য গতিতে চলবে বলেই আশাবাদ ব্যক্ত করি। তবে উন্নয়ন কতোটুকু হবে, কেমন হবে তা মেয়র ভালো জানেন। কারণ তার মাথায় উন্নয়নের যেসব পরিকল্পনা রয়েছে তা অন্যদের মাথায় নেই। সর্বোপরি নারায়ণগঞ্জ সিটি যেন দেশের উন্নয়নের রোল মডেল হয় সেটাই চাই।

জেলা নারী সংহতি আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক পপি রাণী সরকার বলেন, ‘এ বছর নাসিকের বাজেট অনেক বড়। আমরা এই বাজেটকে স্বাগত জানাই। তবে বিশাল এই বাজেটের যথার্থ বাস্তবায়ন এখন প্রধান প্রশ্ন। আমরা জানি ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনায় নাসিক বরাদ্দ রেখেছে। কিন্তু এই খাতে নাসিকের নজরদারি দায়িত্বশীলতা আমরা দেখতে পাইনি। বর্ষার আগে শহরের ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংস্কার বা তদারকি করার কথা থাকলেও তা নাসিক করেনি। ফলে সম্প্রতি আমরা দেখলাম, মাত্র ১ ঘন্টার ভারী বর্ষনে পুরো নগর জলাবদ্ধতায় নিমজ্জিত হয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘যে যে খাতে নাসিক বরাদ্দ রেখে এবং যে সকল উন্নয়ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে তা আদৌ সময় মত শেষ হবে কিনা তাতে দ্বিধা আছে। বাজেটে নারী নিরাপত্তার ক্ষেত্রে কিছু পদক্ষেপ বা বরাদ্দ প্রয়োজন ছিল। নারায়ণগঞ্জে শহর রাতের বেলা নারীদের জন্য খুবই অরক্ষিত। তার উপর মাদক ও মাদকসেবীদের উৎপাত।’

ফেসবুক গ্রুপ ‘নারায়ণগঞ্জস্থান’ এর এডমিন আরেফিন রওশন হৃদয় বলেন, ‘দীর্ঘদিন যাবৎ আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী নগরীর দুটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ফুটওভার ব্রিজের দাবি করে আসছি। কিন্তু আমাদের এই দাবিটি বাজেটে আমরা দেখতে পাইনি। অন্যদিকে আজ বাজেটে একজন এই দাবিটি মেয়র আইভীর কাছে সরাসরি উপস্থাপন করেন কিন্তু মেয়র তা এড়িয়ে যান। মেয়রের এই আচরণে আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী খুব হতাশ হয়েছি। তবু আমরা শহরের দুটি স্থানে ফুটওভার ব্রিজের জোড় দাবি জানাবো।’

জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক রাকিব হাসান রাজ বলেন, কেবল বড় বড় বাজেট দিলেই তো হবে না তার বাস্তবায়ন থাকতে হবে। সিটির উন্নয়ন মেয়র করেছেন কিন্তু তার গতিবেগ যেন বৃদ্ধি পায় সেটাই প্রত্যাশা। কেবল রাস্তা, ড্রেন করলেই তো আর উন্নয়ন হলো না। নাগরিক উন্নয়ন চাই। নগরবাসীর ভোগান্তির দিকগুলোর দিকে নজর দেওয়ার জন্য মেয়রের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ