বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুৎ ভোগান্তিতে জনমনে তীব্র ক্ষোভ

সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯, ২২:০৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুতের ভোগান্তি চরম মাত্রায় পৌছেছে। ঘন্টার পর ঘন্টা লোডশেডিংয়ের পর বিদ্যুৎ আসলেও থাকছে না ত্রিশ মিনিটও। নারায়ণগঞ্জ শহর, ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় গত দুই দিন যাবৎ এই অবস্থা চলছে। তীব্র গরম ও ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে নাজেহাল অবস্থা মানুষের।

তবে বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ জুন অগ্নিকান্ডের ঘটনায় নগরীর শীতলক্ষ্যা এলাকায় অবস্থিত বৈদ্যুতিক সাবস্টেশনের একটি অংশ পুড়ে যায়। আপাতত ওই সাবস্টেশন থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ফলে শীতলক্ষ্যা বৈদ্যুতিক সাবস্টেশনভুক্ত এলাকায় বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে গিয়ে অন্যান্য সাবস্টেশনে কিছুটা চাপ পড়ছে। তাই লোডশেডিং বেড়ে গেছে।

এদিকে বছরের মাঝামাঝি অবস্থায় বিভিন্ন স্কুল-কলেজে চলছে অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষা। বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে পরীক্ষার্থীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। ছোট বড় ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত। বিদ্যুতের ভোগান্তির কারণে অনেক এলাকার মসজিদে মুসল্লিদের নামাজ আদায়ে বিঘ্ন ঘটছে। ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় নিয়ন্ত্রিত ব্যাংক, বীমাসহ সরকারি-বেসরকারি একাধিক ইন্টারনেট নির্ভর প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। ভোগান্তি ও বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে গণমাধ্যকর্মীদেরও।

দেওভোগের বাসিন্দা ইসহাক মিয়া বলেন, ‘এক ঘন্টার মধ্যে তিন-চারবার বিদ্যুৎ আসা যাওয়া করতেছে। বিদ্যুৎ আসার পর পনেরো মিনিটও থাকছে না আবার চলে যাচ্ছে। প্রচন্ড গরমে জীবনযাপন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।’

ব্যবসায়ী আবু তালহা বলেন, ‘লোডশেডিংয়ের জ্বালায় কোন কাজ করা যাচ্ছে না। আইপিএসও ব্যাক-আপ দিচ্ছে না। ব্যাক-আপ দিবে কীভাবে? কারেন্ট আসার পর তো আধ ঘন্টাও থাকতেছে না।’

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ ডিপিডিসির এক্সচেঞ্জ অফিসার আনিসুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘শীতলক্ষ্যায় সাবস্টেশন পুড়ে যাওয়াতে এ জটিলতা। ওটা রিপেয়ার করা হচ্ছে। আসলে বিষয়টা আমাদের হাতে না। সরাসরি গ্রীড থেকে এটার কাজ করা হচ্ছে। তবে আশা করি, আগামীকাল বিকেলের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।’

সব খবর
জনদুর্ভোগ বিভাগের সর্বশেষ