বুধবার ০১ এপ্রিল, ২০২০

না'গঞ্জে জমজমাট রেস্টুরেন্ট ব্যবসা, মানা হচ্ছেনা সামাজিক দূরত্ব

বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ ২০২০, ২১:৪৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: করোনা পরিস্থিতিতে সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও দশ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। অঘোষিত এই লকডাউনে সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও ওষুধের দোকান খোলা রাখার নির্দেশনা রয়েছে। পাশাপাশি খোলা রয়েছে রেস্টুরেন্ট বা খাবার হোটেলগুলো। শহরে মানুষের উপস্থিতি কম থাকলেও জমজমাট রেস্টুরেন্টগুলো।

রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীরা জানান, প্রশাসন থেকে রেস্টুরেন্ট বা খাবার হোটেল বন্ধ রাখার কোনো নির্দেশনা তাদের দেওয়া হয়নি। তবে স্বপ্রণোদিত হয়ে অনেক রেস্তোরা মালিক তাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছেন।

শহর ঘুরে দেখা যায়, শহরের সুগন্ধা প্লাস, সুগন্ধা ফাস্টফুড, সুমাইয়া বিরিয়ানি হাউজ, প্রিন্স বিরিয়ানি হাউজ, ক্যাফে শাহজালালসহ বেশ কয়েকটি রেস্টুরেন্ট ও ফাস্টফুডের দোকান খোলা রয়েছে। লোকজন আসা-যাওয়া করছেন অবাধে। ভেতরে সামাজিক দূরত্বও মানা হচ্ছে না। ভিড়ের মধ্যেই গাদাগাদি করে টেবিলে বসে খাচ্ছেন অনেকে। যদিও রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছিল, হোম ডেলিভারি দেওয়ার জন্য। সন্ধ্যার দিকে রেস্টুরেন্টগুলোতে ভিড় আরও বেড়ে যায়। এদিকে সচেতন মহল বলছেন রেস্টুরেন্ট বন্ধ না রেখেই পরিচ্ছন্ন বজায় রাখার কথা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী বলেন, আমাদের রেস্টুরেন্ট বন্ধ রাখার কোনো নির্দেশনা নেই। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও হোম ডেলিভারি দেওয়ার নির্দেশনা আছে প্রশাসন থেকে। কিন্তু অনেক রেস্টুরেন্ট মালিকই এটা মানছেন না।

সুগন্ধ প্লাস রেস্টুরেন্টের মালিক আফজাল হোসেন বলেন, রেস্টুরেন্ট বন্ধ রাখার কোনো নির্দেশনা নেই। মানবতার খাতিরেই আমরা রেস্তোরা খোলা রেখেছি। এমনিতেও লোকজন কম। ৬০ শতাংশ বিক্রি কমে গেছে। কয়েকদিন পর বন্ধ রাখতেও পারি।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ